কুমিল্লা
বৃহস্পতিবার,২২ অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
৬ কার্তিক, ১৪২৭ | ৪ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪২

নাঙ্গলকোটে কমিনিউটি ক্লিনিক এখন ইউপি চেয়ারম্যানের কার্যালয় !

নাঙ্গলকোট উপজেলা আদ্রা দণি ইউনিয়নের চাটিতলা কমিনিউটি ক্লিনিক দখলে নিয়ে নিজের অফিস বানিয়েছে ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল ওহাব।

চলতি বছরের জানুয়ারী মাস থেকে তিনি (চেয়ারম্যান) কমিনিউটি ক্লিনিকটি দখল করে নিয়ে আদ্রা দক্ষিণ ইউনিয়নের অফিসিয়াল কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন। এতে ব্যাহত হচ্ছে ওই অঞ্চলের প্রান্তিক পর্যায়ের লোকজনের চিকিৎসা সেবা।

জানা গেছে, গত বছরের ২৮ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত নির্বাচনে আদ্রা দণি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন চাটিতলা গ্রামের মো. আব্দুল ওহাব। সাবেক আদ্রা ইউনিয়নকে বিভক্ত করে এ ইউনিয়ন গঠন করা হয়েছিল। ফলে ইউপি কার্যালয় না থাকায় এরপর থেকে ওই কমিনিউটি ক্লিনিকটি নিজের দখলে নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদের কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে।

এখানেই মাসিক মিটিং, শালিস-বৈঠকের মত জনবহুল কাজকর্ম চালিয়ে আসছেন তিনি। এতে ব্যাহত হচ্ছে ওই অঞ্চলের দরিদ্র মানুষের চিকিৎসা সেবা। নাম প্রকাশ না করার শর্তে চাটিতলা গ্রামের একাধিক অন্তঃসত্তা নারী সাংবাদিকদের বলেন, এই ক্লিনিকটিতে চেয়ারম্যান অফিস করার পর থেকে মহিলারা চিকিৎসা নিতে আসতে চায়না।

তিনি (চেয়ারম্যান) সারাদিন নেতাকর্মীদের নিয়ে কমিনিউটি ক্লিনিকটিতে বসে থাকেন। এছাড়াও শালিস বৈঠক চলাকালে লোকজনের ভিড়ে পুরুষ রোগীরাও আসতে পারে না। দিন রাত ওই অফিসে শালিস বৈঠকের কার্যক্রম চালায় চেয়ারম্যান।

এ বিষয়ে আদ্রা দণি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল ওহাব বলেন, কমিনিউটি ক্লিনিকটির জমির দাতা আমি। তাই আবদার করে ১টি কক্ষ ব্যবহার করছি। এতে চিকিৎসা সেবার কোন অসুবিধা হয় না। তবে আমি কিছুদিনের মধ্যে এখান থেকে চলে যাব।

নতে চাইলে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ দেব দাস দেব বলেন, ওই ক্লিনিকে দাযিত্বরত যে সিএইচসিপি আছে সে আমাকে বিষয়টি জানিয়েছে। আপনারা (সাংবাদিকরা) যাওয়ার পর চেয়ারম্যান সাহেব আমাকে বলেছে মাসখানেকের মধ্যে এখান থেকে অন্যত্র অফিস নিয়ে চলে যাবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দাউদ হোসেন চৌধুরী বলেন, আমাকে চেয়ারম্যান সাহেব ফোন করে বিষয়টি জানিয়েছে এবং তিনি বলেছে মাসখানেকের মধ্যে এখান থেকে অন্যত্র অফিস নিয়ে চলে যাবে।

আরও পড়ুন