কুমিল্লা
বৃহস্পতিবার,২২ অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
৬ কার্তিক, ১৪২৭ | ৩ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪২

স্বাভাবিকভাবে সরকার পরিবর্তনের রাস্তা বন্ধ : দুদু

দেশে স্বাভাবিকভাবে সরকার পরিবর্তনের রাস্তা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু।

সোমবার দুপুরে ঢাকা রিপোটার্স ইউনিটির সাগর-রুনী মিলনায়তনে এক মুক্ত আলোচনা সভায় তিনি এমন মন্তব্য করেন।

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া এবং তার ব্যক্তিগত সহকারী শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাসসহ সকল রাজবন্দিদের মুক্তির দাবিতে ঢাকা রিপোটার্স ইউনিটির সাগর-রুনী মিলনায়তনে এই মুক্ত আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

দুদু বলেন, ‘দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতেও এখনো বিএনপি নির্বাচনের মাধ্যমে সরকার পরিবর্তনকে প্রধান বিষয় মনে করে। কিন্তু সেই পদ্ধতি বন্ধ হয়ে গেলে সেই পথকে ফিরিয়ে আনতে গণঅভ্যুত্থানের পথ বেছে নেবে। এটা কোনো বিপ্লবী পথ নয়, এটা সাংবিধানিক পথ- নির্বাচন এবং গণঅভ্যুত্থান।’

তিনি বলেন, ‘গণতান্ত্রিক আন্দোলন এবং গণতন্ত্রকে যারা বিশ্বাস করে দেশে এবং বিদেশে, তাদের বিশ্বাস হচ্ছে নির্বাচনের মাধ্যমে বিপ্লব। সশস্ত্র অথবা চরমপন্থার মাধ্যমে সরকার পরিবর্তনকে তারা বিশ্বাস করে না।’

‘বিএনপি যে পন্থা বিশ্বাস করে তা হলো নির্বাচনের মাধ্যমে সরকার পরিবর্তন। কিন্তু সেই পথটি এখন বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। খুলনায় সর্বশেষ যে নির্বাচনটি হয়েছে তা প্রমাণ করে যে, সরকার নির্বাচন কমিশন, পুলিশ, আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগের ক্যাডারবাহিনী সব একাকার হয়ে গেছে। তারা সবাই একে অপরের পিঠ চুলকাচ্ছে’ যোগ করেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান।

তিনি বলেন, ‘সংবিধানের ১২৫ অনুচ্ছেদেও বলা আছে- তফসিল ঘোষণার পর নির্বাচন কমিশন সমস্ত ক্ষমতা বহন করে। কিন্তু খুলনায় তারা তো সেভাবে চলেই নাই, বরং পুলিশ প্রশাসন এবং সরকার তাদেরকে যেভাবে চলতে বলেছে, তারা সেভাবে চলেছে।’

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া কি জেলে মৃত্যুবরণ করবেন- নেতাকর্মীদের প্রতি এমন প্রশ্ন রেখে ছাত্রদলের সাবেক এই সভাপতি বলেন, এই প্রশ্ন যারা গণতন্ত্রকে বিশ্বাস করে এবং গণতন্ত্রকে মানে, তাদেরকে একটু ভেবে দেখতে হবে।

এসময় তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ‘বেগম জিয়াসহ অনেকেই কারাগারে আছেন। অনেকেই ম্যাডাম কারাগারে যাওয়ার আগে বলেছিলেন- আমরা আন্দোলন করব বেগম জিয়া জেলে গেলে। আন্দোলনের জন্য আহ্বান করা লাগবে কেন? আমরাতো কারাগারে আপনাদের জন্য বিছানা-খাবার রেডি করেছিলাম আপনারা আসবেন বলে।’

নেতাকর্মীদের উদ্দেশে দুদু আরও বলেন, ‘এভাবে হবে না, নিজের সঙ্গে প্রতারণা করে আন্দোলন হয় না। একজন আরেকজনের দায়ে চাপাবেন এভাবে আন্দোলন হয় না। যদি আন্দোলন করতে হয় কৃষকের কাছে যেতে হবে, ছাত্রদের কাছে যেতে হবে, জনগণের কাছে যেতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘আসুন, সবাই ঐক্যবদ্ধ হই। নতুন করে এই ছয় মাস কাজে লাগাই। আগামী নতুন বছরে বেগম খালেদা জিয়াকে প্রধানমন্ত্রী বানাই।’

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি কে এম রকিবুল ইসলাম রিপনের সভাপতিত্বে এবং দফতর সম্পাদক গোলাম সরোয়ারের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিএনপির আরেক ভাইস-চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান।

এসময় আরও বক্তব্য দেন চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিব, নির্বাহী কমিটির সদস্য আলমগীর হোসেন, জিনাফের সভাপতি লায়ন মিয়া মো. আনোয়ার, ছাত্রদলের সহ-সাধারণ সম্পাদক আরিফা সুলতানা রুমা, দফতর সম্পাদক আবদুস সাত্তার পটোয়ারী প্রমুখ।

আরও পড়ুন