কুমিল্লা
বৃহস্পতিবার,৩ ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
১৮ অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ | ১৭ রবিউস-সানি, ১৪৪২

আমাকে শায়েস্তা করতে এ মামলা : আসিফ আকবর

তাদের পছন্দমত কোম্পানির সাথে চুক্তিবদ্ধ না হওয়ায় আমাকে শায়েস্তা করার জন্য এ মিথ্যা মামলা করা হয়েছে। আমার নামে বিভিন্ন পত্রিকায় মিথ্যা তথ্য দিয়ে সংবাদ প্রকাশ হয়েছে আমার বক্তব্য ছাড়া। প্রথমে তারাই ফেসবুকে আমাকে নিয়ে মানহানিকর স্ট্যাটাস দেওয়া হয়েছে। মামলাতো করার কথা আমার।

বুধবার আসিফের মামলার শুনানির সময়ে আদালত আসিফের কাছে বাদীর অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি এসব কথা বলেন। এসময় সুরকার ও কণ্ঠশিল্পী শফিক তুহিনের সংগীতকর্মসহ অন্যান্য গীতিকার, সুরকার ও শিল্পীদের ৬১৭টি গান সবার অজান্তে বিক্রি করার বিষয়ে আসিফ আকবর বলেন, ‘২০০৮ সালে মোবাইল কোম্পানিগুলোর সাথে আমরা চুক্তিবদ্ধ হই। পরে সরকার ২০১৪ সালে নতুন আইন করে।

আগের চুক্তিতে আমরা কেউ লাভবান হইনি। আদালতে আসিফের আইনজীবী আসাদুজ্জামান বলেন, ‘ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে অনুমোদন ছাড়া গান বিক্রির এই ঘটনা উল্লেখ করে একটি পোস্ট দেন গীতিকার, সুরকার তুহিন।

তার (তুহিন) অভিযোগ ওই পোস্টের নিচে আসিফ আকবর নিজের একটি অ্যাকাউন্ট থেকে অশালীন মন্তব্য ও হুমকি দেন। কিন্ত পোস্টে আসিফ কী কূটুক্তি বা মানহানিকর কমেন্ট করেছে তা জাহারে স্পষ্ট করা হয়নি। তথ্যপ্রযুক্তি আইনে এ মামলা চলে না।’

এসময় বিচারকও আইনজীবীর সাথে সহমত পোষণ করেন বলে সাংবাদিকদের কাছে দাবি করেন আসিফের আইনজীবী আসাদুজ্জামান। রিমান্ড বাতিল করলেও তথ্য প্রযুক্তি আইনে মামলার সীমাবদ্ধতার কারনে জামিন দেওয়া সম্ভব নয় বলে জানান তিনি।

আরও পড়ুন