কুমিল্লা
শুক্রবার,১৫ নভেম্বর, ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ
১ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ | ১৭ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১
Bengali Bengali English English

অপু-রাহীর আঘাতে দুই আফগান ওপেনারের বিদায়

ভয়ঙ্কর হয়ে উঠেছিলেন আফগান ওপেনার মোহাম্মদ শাহজাদ। ২১ বলে করেছেন ২৬ রান। কিন্তু তাকে আর বেশি বাড়তে দেননি নাজমুল ইসলাম অপু। দলীয় অষ্টম ওভারের চতুর্থ বলে এলবিডাব্লুলর ফাঁদে ফেলে শাহজাদকে সাজঘরের পথ দেখান অপু।

এরপরই আঘাত হানেন আবু জায়েদ রাহী। নিজের করা প্রথম ওভারের পঞ্চম বলে অন্য ওপেনার ওসমান গনিকে (১৯) মুশফিকুর রহীমের তালুবন্দী করেন। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত আফগানিস্তান ২ উইকেট হারিয়ে ৯ ওভারে ৬০ রান সংগ্রহ করেছে। আসগর স্ট্যানিকজাই ৫ ও সামিউল্লাহ শেনওয়ারি ১ রানে অপরাজিত আছেন।

প্রথম দুই ম্যাচ হেরে বাংলাদেশ সিরিজ খুঁইয়েছে আগেই। বৃহস্পতিবার ভারতের দেরাদুনে মূলত হোয়াইটওয়াশের লজ্জা থেকে বাঁচতে মাঠে নেমেছে টাইগাররা। সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে টস জিতে ব্যাটিংয়ে আফগানিস্তান।

আর দুই ওপেনার মোহাম্মদ শাহজাদ ও উসমান গনির ওপর ভর দিয়ে শুরুটা ভালোই করেছে তারা। বিশেষ করে উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান শাহজাদ শুরু থেকেই চড়াও হয়েছেন বাংলাদেশের বোলারদের ওপর।

সাকিব আল হাসান শুরুর ওভারটি তুলে দেন মেহেদী হাসান মিরাজের হাতে। কিন্তু দলে ফেরা মিরাজ হতাশই করেছেন অধিনায়ককে। তার করা প্রথম ওভারেই ১৮ রান তুলে নেয় আফগানিস্তান। দ্বিতীয় ওভার করতে আসা নাজমুল ইসলাম অপু অবশ্য ২ রান দেন। তৃতীয় ওভারে আসেন অধিনায়ক নিজে। এ ওভারে ৬ রান নিতে পারে আফগানিস্তান।

চতুর্থ ওভারে আবু হায়দার রনিকে আনেন সাকিব। তিনি দেন ৮ রান। পঞ্চম ওভার করতে এসে আফগান দুই ব্যাটসম্যানের ওপর ভালোই চাপ সৃষ্টি করেন সাকিব। নিজের করা দ্বিতীয় ওভারে দেন মাত্র ১ রান। ষষ্ঠ ওভারে আবার অপুকে ডাকেন অধিনায়ক। নিজের করা দ্বিতীয় ওভারে ৮ রান দিয়েছেন অপু।

সপ্তম ওভারে পঞ্চম বোলার হিসেবে সৌম্য সরকারের হাতে বল তুলে দেন সাকিব। সৌম্যর করা সপ্তম ওভারে ৫ রান তুলে অর্ধশত রান পূর্ণ করে আফগানিস্তান।

আরও পড়ুন