কুমিল্লা
শনিবার,২৪ অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
৮ কার্তিক, ১৪২৭ | ৬ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪২

কলার ট্রাকের ‘বাঘ শাবক’টি কুমিল্লা চিড়িয়াখানায়

পাবর্ত্য জেলা খাগড়াছড়ি থেকে কলাবাহী ট্রাকের সঙ্গে চলে আসা প্রাণীটি আসলে বাঘ শাবক নয়, বনবিড়াল। জেলা প্রাণীসম্পদ কার্যালয়ের সার্জন ডা. নাজমুল হোসেন এ তথ্য জানিয়েছেন। শনিবার বিকেলে বনবিড়ালটিকে কুমিল্লা চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

কুমিল্লা চিড়িয়াখানার খাচায় সন্ধ্যায় এটিকে অবমুক্ত করেন জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সঞ্জয় কুমার ভৌমিক।দর্শনার্থীদের বিনোদনের জন্য আগে থেকেই এই চিড়িয়াখানায় মেছো বাঘের সঙ্গে এবার যুক্ত হলো বনবিড়ালটি।

এর আগে গত শুক্রবার রাতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার দেবীদ্বার-বাগুর বাস স্টেশনে খাগড়াছড়ি থেকে আসা কলাবোঝাই ট্রাক থেকে লাফিয়ে পড়ে ওই প্রাণীটি।

আশ্রয় নেয় স্টেশন সংলগ্ন জালাল মেম্বারের তেল-মবিলের দোকানে। কৌশলে সেটিকে উদ্ধার করে খাঁচায় ভরা হয়। তাৎক্ষণিকভাবে এ প্রাণীটিকে স্থানীয়রা বাঘের বাচ্চা হিসেবেই ধরে নিয়েছিল।

খবর পেয়ে শনিবার কুমিল্লা জেলা পরিষদের সদস্য শাহজাহান সরকার জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সঞ্জয় কুমার ভৌমিককে বিষয়টি অবহিত করেন।

মূলত তার নির্দেশে শনিবার দুপুরে বাগুর বাস স্টেশন থেকে খাঁচাবন্দি প্রাণীটিকে নিয়ে আসা হয় জেলা পরিষদ কার্যালয়ে। সেখানে এসে প্রাণী সম্পদ কার্যালয়ের সার্জন ডা. নাজমুল হোসেন প্রাণীটিকে বনবিড়াল হিসেবে সনাক্ত করেন।

চান্দিনা ডাকবাংলোর তত্ত্বাবধায়ক কবির হোসেন জানান, সবার উপস্থিতিতে বনবিড়ালটিকে চিকিৎসা শেষে চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

আরও পড়ুন