কুমিল্লা
রবিবার,২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
১২ আশ্বিন, ১৪২৭ | ৯ সফর, ১৪৪২

শত বছরের রাস্তা বন্ধ করে সীমানা প্রাচীর নির্মানের উদ্যোগ

ছবিটি প্রতীকী

লাকসামে শত বছরেরও অধিক সময় থেকে জনসাধারনের চলাচলকারী রাস্তা বন্ধ করে উপজেলা ভূমি অফিসের সীমানা প্রাচীর নির্মানের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। উপজেলা ভূমি অফিসের সীমানা প্রাচীর নির্মানে সরকারি বরাদ্দ পাওয়ার পর এসিল্যান্ড মোঃ ইসমাইল হোসেন কর্তৃক সুতা টানিয়ে সীমানা নির্ধারণ করে ঠিকাদারকে জায়গা বুঝিয়ে দিলে স্থানীয় এলাকাবাসী -এর প্রতিবাদ জানায়।

এলাকাবাসী জানায়, লাকসাম উপজেলা ভূমি অফিসের পাশ দিয়ে বিএস নকশা অনুযায়ী প্রায় ৬ ফুট প্রশস্থ একটি রাস্তা রেকর্ড করা আছে, যার দাগ নং ৫০০৩। কিন্তু সহকারী কমিশনার (ভূমি) এ বিএস রেকর্ডকে এড়িয়ে গিয়ে শত বছরের পুরনো প্রায় ২শ’ পরিবারের চলাচলের ওই রাস্তাটি বাউন্ডারী ওয়ালের ভিতরে ঢুকিয়ে সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করতে গেলে স্থানীয়দের ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।

এ নিয়ে শনিবার বিকেলে স্থানীয় কাউন্সিলর মোঃ আব্দুল আলিম দিদারের উপস্থিতিতে এলাকাবাসী স্থানীয় সাংবাদিকদের সামনে বিষয়টি তুলে ধরেন এবং সহকারী কমিশনার (ভূমি) কর্তৃক সীমানা প্রাচীর নির্মানের উদ্যোগের প্রতিবাদ জানান।

লাকসাম পৌরসভার প্যানেল মেয়র-২ ও স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবদুল আলিম দিদার জানান, লাকসামের প্রয়াত জমিদার নবাব ফয়জুন্নেসা সরকার বাহাদুরকে এই জায়গাটি দান করেছিলেন। সরকার এই জায়গাটি একোয়ার করেনি। ১শ’ বছরের অধিক সময় থেকে এলাকাবাসী এ জায়গা দিয়ে চলাচল করে আসছে।

আর অতীতে এসিল্যান্ড অফিস কর্তৃক চলাচলের জায়গা বাদ দিয়ে গাছ লাগিয়েছেন। যা এখন অনেক বড় হয়েছে। বর্তমানে এসিল্যান্ড সাহেব শত বছরের পুরোনো ওই চলাচলের রাস্তা বন্ধ করে ওয়াল নির্মাণ করায় জনসাধারনের মাঝে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

এ বিষয়ে লাকসাম উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ ইসমাইল হোসেন নতুন কুমিল্লাকে জানান, আমি এখানে সরকারের প্রতিনিধি। তাই সরকারি অফিসের নিরাপত্তা এবং সরকারি জায়গা সংরক্ষণ করা আমার দায়িত্ব। এ নিয়ে এলাকাবাসীর কোন অভিযোগ থাকলে জেলা প্রশাসক মহোদয়কে জানাতে পারেন।

(নতুন কুমিল্লা/জেপি/এমএকে/জুন ১১, ২০১৮)

আরও পড়ুন