কুমিল্লা
শুক্রবার,৪ ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
১৯ অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ | ১৭ রবিউস-সানি, ১৪৪২

কর আরোপ ছাড়াই কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের ৩৭৩ কোটি টাকার বাজেট

প্রাক বাজেট আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন সিটি মেয়র মনিরুল হক সাক্কু। ছবি: নতুন কুমিল্লা

নতুন কর আরোপ ছাড়াই কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরের জন্য ৩৭৩ কোটি ৩৭ লাখ টাকার বাজেট দিতে যাচ্ছে কুমিল্লা সিটি করপোরেশন। যা গত বছরের বাজেটের তুলনায় দ্বিগুন। কুমিল্লার বিশিষ্ট নাগরিকবৃন্দ, সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দ, সম্পাদক সাংবাদিকের সাথে প্রাক বাজেট আলোচনায় এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বুধবার দুপুরে কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের ভবনে অতীন্দ্র মোহন রায় সম্মেলন কক্ষে মেয়র মো: মনিরুল হক সাক্কুর সভাপতিত্বে প্রাক-বাজেট আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।আলোচনায় বলা হয় আগামী অর্থ বছরে মোট বাজেট ৩৭৩ কোটি ৩৭ লাখ ৮৩ হাজার ৪শ ৫৮ টাকা। আর এই বিপুল অংকের টাকার বেশিরভাগই আসবে উন্নয়ন অনুদান থেকে। যার পরিমাণ ৩ শ ৬ কোটি টাকা। আর বাকি টাকার মধ্যে রাজস্ব খাতের আয় থেকে আসবে ৪৬ কোটি ৩৩ লাখ টাকা। আর এই বাজেটের সবচেয়ে বেশি টাকা ব্যয় হবে শহরের উন্নয়ন খাতেই। যার পরিমাণ ৩ শ’ ২৬ কোটি টাকা।

প্রাক বাজেট আলোচনায় মেয়র মনিরুল হক সাক্কু বলেন, ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরে কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন এলাকায় নতুনভাবে কোনো কর বাড়ানো হয় নি। প্রস্তাবিত বাজেট উপস্থাপনকালে বলা হয়, ২০১৬-১৭ অর্থবছরে কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের বাজেট ছিল ১৪৭ কোটি ১৫ লাখ ৬৭ হাজার ৫শ ১৮ টাকা।

২০১৭-২০১৮ অর্থবছরে সংশোধিত বাজেট ছিল ১৬৬ কোটি ৩৯ লাখ ৫৩ হাজার ৮শ ৯১ টাকা। চলতি অর্থবছরে তথা ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরে প্রস্তাবিত বাজেট ৩৭৩ কোটি ৩৭ লাখ ৮৩ হাজার ৪শ ৫৮ টাকা।

আলোচনায় সভাপতির বক্তব্যে মেয়র মো: মনিরুল হক সাক্কু কুমিল্লা সিটি কর্পোশেন এলাকার রাস্তা-ড্রেন-কালভার্টসহ বিভিন্ন উন্নয়নের কথা উত্থাপন করে বলেন, শিক্ষা খাতে উন্নয়নের ক্ষেত্রে কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের নিয়ন্ত্রনাধীণ কোনো শিক্ষা প্রতিষ্ঠান না থাকলেও অচিরেই এটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালনার দায়িত্ব গ্রহণ করবে।

তিনি বলেন, নবাব ফয়জুন্নেছা সরকারি বালিকা বিদ্যালয় ও কুমিল্লা জিলা স্কুলের নান্দনিক প্রধান ফটক ইতোমধ্যে কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন করে দিয়েছে। কুমিল্লা কালেক্টারেট স্কুল এন্ড কলেজের উন্নয়নে কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন ইতোমধ্যে ৬০ লাখ টাকা প্রদান করেছে। জাইকার ১৪ কোটি ১৬ লাখ বরাদ্দের নিমিত্তে টমসন ব্রিজ-কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল রোডের কাজ চলছে। এটি সিটি করপোরেশনের রাস্তা না হলেও সিটি করপোরেশন তা করে দিবে পুরাতন গোমতী নদী ও ডিসি অফিসের পাশ্ববর্তী পুকুর সংস্কারের জন্য প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। যানজট নিরসনে সিটি কর্পোরেশন এলাকায় ৩০-৪০টি ১২-১৪ সিট বিশিষ্ট লেগুনা সার্ভিস চালুর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

মেয়র মনিরুল হক সাক্কু আরো জানান, আগামী এক বছরের মধ্যে কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন এলাকায় ৯টি খাল পুন:খনন করা হলে জলাবদ্ধতা নিরসন হবে। তেলিকোনায় মা-মণি হাসপাতালের পাশে একটি আধুনিক অডিটরিয়াম নিমার্ণের পরিকল্পনা রয়েছে। আগামী ৩ মাসের মধ্যে কান্দিরপাড়-বাদুড়তলা এলাকায় ২টি পাবলিক টয়লেট নির্মাণ করা হবে। রাজগঞ্জ বাজারকে দ্বিতল করার পরিকল্পনা রয়েছে। প্রস্তাবিত বাজেট যাতে কুমিল্লাবামীর জীবনযাত্রার মান উন্নয়নে সহায়ক হয় সেজন্য তিনি সকলের সহযোগিতা চেয়েছেন।

প্রস্তাবিত বাজেটের আলোচনায়ায় অংশগ্রহণকারী বিশিষ্ট নাগরিক, সামাজিক নেতৃবৃন্দ ও সম্পাদক-সাংবাদিক আলোচকদের মতামতের ভিত্তিতে তিনি এসব কথা বলেন। সভার শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা অনুপম বড়–য়া।

মুক্ত আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি কুমিল্লা জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব শাহ মো: আলমগীর খান, কুমিল্লা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও সাপ্তাহিক অভিবাদন সম্পাদক আবুল হাসানাত বাবুল, সাংবাদিক অশোক বড়–য়া দৈনিক শিরোনাম সম্পাদক নীতিশ সাহা, দৈনিক কুমিল্লার কাগজ সম্পাদক আবুল কাশেম হৃদয়, দৈনিক বাংলার আলোড়ন সম্পাদক রফিকুল ইসলাম, জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের ডেপুটি কমান্ডার নন্দন চৌধুরী, রাজনৈতিক নেতা আবদুর রউফ চৌধুরী ফারুক, সাংবাদিক ওমর ফারুকী তাপস, দৈনিক ইনকিলাবের সাংবাদিক সাদিক মামুন প্রমুখ।

(নতুন কুমিল্লা/একেএম/এবিএম/বুধবার, জুন ২৭, ২০১৮)

আরও পড়ুন