কুমিল্লা
বুধবার,২৮ অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
১২ কার্তিক, ১৪২৭ | ১০ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪২

ব্রাজিলের বিশ্বকাপ জেতার সম্ভাবনা ৬৫ ভাগ

টম সেইন্টফিট। ফাইল ছবি

রাশিয়া বিশ্বকাপে নকআউট পর্বে রোমাঞ্চকর সব ম্যাচ হচ্ছে। প্রায় সব ম্যাচেই উত্তেজনার রেণু ছড়িয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে জায়গা করে নিচ্ছে দলগুলো। সর্বশেষ ব্রাজিল-মেক্সিকো এবং বেলজিয়াম-জাপান ম্যাচটি তার প্রমাণ। বাংলাদেশের সাবেক বেলজিয়ান কোচ টম সেইন্টফিট আগ্রহ নিয়েই দুটো ম্যাচ দেখেছেন। ট্রফি জয়ের সম্ভাবনায় তিনি বেলজিয়ামের চেয়ে এগিয়ে রাখলেন ব্রাজিলকেই।

নেইমার জাদুতে শেষ ষোলো পার করেছে ব্রাজিল। সোমবার ম্যাচটিতে তেমন প্রতিদ্বন্দ্বিতা গড়তে পারেনি মেক্সিকো। আর অপরটিতে রোমাঞ্চ উপহার দিয়ে জাপানকে শেষ মুহূর্তের গোলে ৩-২-এ হারিয়েছে বেলজিয়াম। শেষ আটে এই ব্রাজিল-বেলজিয়ামই মুখোমুখি হবে সেমিফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে।

বাংলাদেশের সাবেক কোচ টম সেইন্টফিট দুদলের পার্থক্য করতে গিয়ে নিজ দেশ বেলজিয়ামের চেয়ে এগিয়ে রাখলেন ব্রাজিলকেই, ‘ব্রাজিলের বিশ্বকাপ জেতার সম্ভাবনা এবার ৬৫ ভাগ। তিতের দল অনেক দিক দিয়ে এগিয়ে রয়েছে। অন্যদিকে আমার দেশ বেলজিয়াম ভালো খেললেও তাদের বিশ্বকাপ জয়ের সম্ভাবনা ২৫ ভাগ। এটা সবদিক বিবেচনা করেই বলছি।’

ব্রাজিল-মেক্সিকোর ম্যাচ পর্যালোচনা করতে গিয়ে এই কোচ বলেছেন, ‘ ব্রাজিল শক্তিশালী দল হিসেবে ম্যাচ জিতেছে। মেক্সিকোর সঙ্গে তাদের তেমন কোন দুর্বলতা চোখে পড়েনি। তারা বিশ্বকাপে অন্যতম ফেভারিট দল। কিন্তু ফুটবলে অনেক কিছুই হয়ে থাকে। অনেক অবাক করা ঘটনাও ঘটে থাকে। এই যেমন বিশ্বকাপে জায়গা হয়নি ইতালি, নেদারল্যান্ডসের মতো দলের। আবার স্পেন, জার্মানি ও আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপের মাঝপথে বিদায় নিয়েছে। আর তিতের এই ব্রাজিল অনেক দূর যাবে বলে মনে হচ্ছে।’

নেইমারের প্রসঙ্গ আসতেই সেইন্টফিট প্রশংসার পাশাপাশি সমালোচনাও করেছেন তার, ‘নেইমার ভালো করছে। আস্তে আস্তে নিজের পারফরম্যান্স দেখাচ্ছে। তবে একটা সমস্যা হলো অতিমাত্রায় ‘ভান’ করছে সে। ডাইভ দিচ্ছে, রোলিং করছে। তবে একটা কথা বলতেই হবে, যাই করুক না কেন, নেইমার কিন্তু অন্যতম সেরা খেলোয়াড়।’

বেলজিয়াম দল নিয়ে বিশ্লেষণ করেছেন সাবেক এই কোচ। তার মতে, ‘আমাদের অনেক মেধাবী খেলোয়াড় আছে। কিন্তু ফরোয়ার্ড যতটা না শক্তিশালী ঠিক বিপরীত চিত্র ডিফেন্সে- দুর্বলতা আছে। এমনটি থাকলে ব্রাজিলের মতো দলের কাছে হেরে গেলেও অবাক হওয়ার মতো কিছু থাকবে না। আমার মনে হয় আমাদের ডিফেন্স আরো জমাট করে খেলা উচিত। চারজনকে ডিফেন্সে রাখা উচিত।’

এর পিছেন যুক্তিও দেখালেন সেইন্টফিট, ‘কেননা লুকাকু, হ্যাজার্ডদের মতো খেলোয়াড় আছে, যারা দেশের জন্য কিছু করে দেখাচ্ছে। দলের প্রত্যাশাও বাড়িয়ে দিয়েছে। একটি টিম হিসেবে সবাই খেলতে পারলে আরো উপরের দিকে ওঠা সম্ভব।’

আরও পড়ুন