কুমিল্লা
বৃহস্পতিবার,১ অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
১৬ আশ্বিন, ১৪২৭ | ১৩ সফর, ১৪৪২

ফ্রান্স ‘ফুটবল বিরোধী’ দল : কুর্তোইস

সোনালী প্রজন্মে ভর করে স্বপ্নের দোয়ারে দাঁড়িয়ে ছিল বেলজিয়াম। ১৯৮৬ সালের পর ফের সেমি ফাইনালে উঠে এসেছিল দলটি। ইডেন হ্যাজার্ড, রোমেলু লুকাকু, কেভিন ডি ব্রুইনে ভর করে ট্রফি জয়ের স্বপ্ন দেখছিল দেশটি। কিন্তু মঙ্গলবার প্রথম সেমি ফাইনালে ফ্রান্সের বিপক্ষে ১-০ গোলে হেরে সেই স্বপ্ন মিলিয়ে গেছে। তবে বেলজিয়াম গোলরক্ষক থিবো কুর্তোইস ফ্রান্সের এদিনের কৌশল নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। ফ্রান্সকে ‘ফুটবল বিরোধী’ দল হিসেবেই অভিযুক্ত করেছেন চেলসির দীর্ঘদেহী এই গোলরক্ষক।

সেন্ট পিটার্সবার্গ স্টেডিয়ামে মঙ্গলবারের লড়াই প্রথমার্ধ ছিল গোলশূন্য। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই স্যামুয়েল উমতিতির হেড থেকে করা গোলে এগিয়ে যায় ফ্রান্স। কিন্তু বেলজিয়াম দারুণ প্রচেস্টার পরও গোল পরিশোধ করতে পারেনি। পুরো ম্যাচে ৬৪ শতাংশ বল দখলে রেখেও পরাজিত থাকতে হয়েছে। বেলজিয়াম গোলরক্ষক থিবো কুর্তোইস তাই বলছেন, ‘এটি (ফ্রান্স) একটি ফুটবল বিরোধী দল। তাদের স্ট্রাইকাররা গোল থেকে ৩০ মিটার দূরত্বে খেলেছে।’

কুর্তোইস বলেন এমন খেলার সাক্ষী তিনি প্রথম হলেন, ‘ফ্রান্স ফুটবল বিরোধী খেলা খেলেছে। আমার কখনো এমন অভিজ্ঞতা ছিলনা স্ট্রাইকাররা গোল থেকে এতো দূরে খেলে। নিজেদের মতো খেলাটা তাদের অধিকার… কিন্তু এটা দেখতে কখনোই ভালো দেখায় না।’ শুধু ফ্রান্সের কৌশল নয়, রেফারিকেও কাঠগড়ায় তুলেছেন বেলজিয়াম গোলরক্ষক, ‘শুধু ফ্রান্সের ট্যাকটিস নয়, রেফারিও ভালো বাঁশি বাজায়নি।’

গোল পোস্টের নিচে অবশ্য ব্যস্ত সময় কাটাতে হয়েছে কুর্তোইসকে। মোট ১৯টি শটের মুখোমুখি হতে হয়েছে থিবো কুর্তোইসকে। যার পাঁচটি ছিল অন টার্গেটে। এই তথ্য কুর্তোইসের মন্তব্যের ভুল প্রমাণ করে। কিন্তু বেলজিয়াম গোলরক্ষক সাফ বলে দিচ্ছেন, ‘ফ্রান্স হেড থেকে একটি গোল করেছে। এরপর ডিফেন্সে ছাড়া কিছুই করেনি।’

সূত্র : দ্য সান, গোল ডটকম।

আরও পড়ুন