কুমিল্লা
শনিবার,১৫ মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
১ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ | ২ শাওয়াল, ১৪৪২

নাঙ্গলকোটে নির্যাতনে মাদ্রাসা ছাত্রীর মৃত্যু: সৎ মা আটক

নিহত মিলি আক্তারের ফাইল ছবি।

নাঙ্গলকোটে সৎ মায়ের নির্যাতনে মিলি আক্তার (৭) নামের এক শিশু মৃত্যু হয়েছে। উপজেলার হেসাখাল ইউপির আইনজিয়া গ্রামের এ ঘটনা ঘটে। নিহত মিলি ফেনী সদর উপজেলার লেমুয়া ইউপির নেওয়াজপুর গ্রামের কুয়েত প্রবাসীর মুসা মিয়ার মেয়ে। এ ঘটনায় বুধবার (১৮ জুলাই) সন্ধ্যায় নিহতের সৎ মা কামরুন নাহারকে আটক করে থানা পুলিশ।

নিহতের জেঠা হারুনুর রশিদ নতুন কুমিল্লাকে জানান, বুধবার ভোররাতে নিহতের দাদার আব্দুল মোনাফের মুঠো ফোনে নাঙ্গলকোট থেকে মেম্বার পরিচয়ে একটি ফোন আসে। তিনি বলেন আপনার নাতনি মিলি হাসপাতালে মারা গেছে। তার লাশ নিয়ে যান।

খবর পেয়ে স্বজনরা নাঙ্গলকোট এলে শিশুটির মরদেহ পরিবারকে হস্থান্তর করে সৎ মা কামরুন নাহার। বাড়িতে নিয়ে শিশুটির মরদেহ দাফনের জন্য গোসল করাতে গেলে তার শরীর ও গলায় বিভিন্ন আঘাতের চিহ্ন দেখা যায়। বিষয়টি ফেনী সদর থানায় জানানো হলে তাদের পরামর্শে নিহতের মরদেহ নাঙ্গলকোট থানায় নিয়ে আসি।

তিনি আরও জানান, মিলি ফেনী খাদিজাতুল ক্বোবরা মাদ্রাসায় আবাসিকে থেকে পড়া-লেখা করত। গত দুইমাস পূর্বে নিহতের পিতা মুছা মিয়া কুয়েত থেকে ছুটিতে বাড়ীতে আসলে সৎ মায়ের পরামর্শে মিলিকে লাকসামে একটি মাদ্রাসায় ভর্তি করানো হয়।

এ বিষয়ে নাঙ্গলকোট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে নতুন কুমিল্লাকে বলেন, নিহতের শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। বৃহস্পতিবার (আগামীকাল) মরদেহ ময়না তদন্ততের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হবে। এ ঘটনায় সৎ মা কামরুন নাহারকে আটক করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

(নতুন কুমিল্লা/জেপি/এমডিএম/১৮ জুলাই ২০১৮)

আরও পড়ুন