কুমিল্লা
বুধবার,২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
১৫ ফাল্গুন, ১৪৩০ | ১৭ শাবান, ১৪৪৫
শিরোনাম:
অভি’কে সিইও হিসেবে অনুমোদন দিলো আইডিআরএ কুমিল্লায় ৭১১ রোগীকে বিনামূল্যে চিকিৎসা দিলেন ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন ইসলামী ব্যাংকের ফাস্ট এ্যসিসস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে নাজমুলের পদোন্নতি লাভ ‘গ্লোবাল ইয়ুথ লিডারশিপ’ অ্যাওয়ার্ড পেলেন তাহসিন বাহার কুমিল্লার সাবেক জেলা প্রশাসক নূর উর নবী চৌধুরীর ইন্তেকাল কাউন্সিলর প্রার্থী কিবরিয়ার বিরুদ্ধে অস্ত্র সরবরাহের অভিযোগ লাকসামে বঙ্গবন্ধু ফুটবল গোল্ডকাপে পৌরসভা দল বিজয়ী কুসিক নির্বাচন: এক মেয়রপ্রার্থীসহ ১৩ জনের মনোনয়ন প্রত্যাহার কুসিক নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন বিদ্রোহী প্রার্থী ইমরান স্বাস্থ্য সচেতনতার লক্ষ্যে কুমিল্লায় ঢাকা আহছানিয়া মিশনের মেলার আয়োজন

কুবি শিক্ষার্থী প্রলয়ের পাশে সমাজের বিত্তবানরা

অনুদান প্রদান করচেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। ইনসেটে প্রলয় চৌধুরী। ছবি: নতুন কুমিল্লা

দুরারোগ্য লিভার সিরোসিসে আক্রান্ত কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) মার্কেটিং বিভাগের নবম ব্যাচের মেধাবী শিক্ষার্থী প্রলয় চৌধুরীর চিকিৎসায় সাহায্যের জন্য পাশে দাঁড়িয়েছেন সমাজের বিত্তবানরা।

মার্কেটিং বিভাগের শিক্ষক ও তার চিকিৎসার টাকা সংগ্রহের জন্য যারা কাজ করে যাচ্ছেন তারা জনান, প্রলয়ের চিকিৎসার জন্য এ পর্যন্ত বিভিন্ন স্থানে ক্যাম্পেইন করে ও সমাজের বিত্তবানদের কাছ থেকে প্রায় ২০ লাখ টাকা সংগ্রহ হয়েছে। তার চিকিৎসা বাবদ আরও ৪০ লাখ টাকার প্রয়োজন।

অনুদানকারীদের মধ্যে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন এক লাখ টাকা, ফরমেজ গ্রুপের চেয়ারম্যান কাদের মোল্লা এক লাখ টাকা, ফেনী জেলার জেলা প্রশাসক মনোষ কুমার রায় ৫০ হাজার টাকা, ফেনীর মেয়র হাজী আলাউদ্দিন ৫০ হাজার টাকা, ফেনী জেলার পুলিশ সুপার (এসপি) এস এম জাহাঙ্গীর আলম সরকার ১০ হাজার টাকা অনুদান দিয়েছেন।

এছাড়াও বিভিন্ন স্থানের বিভিন্ন পেশার লোকজন ও শিক্ষার্থীরা প্রলয়ের চিকিৎসার জন্য অনুদান দিয়ে যাচ্ছেন।

কুবি ছাত্র প্রলয় চৌধুরী প্রায় তিন বছর ধরে লিভার সিরোসিসে ভুগছেন। তার পরিবার এতোদিন যতদূর সম্ভব তার চিকিৎসা করিয়ে আসছিলো। এজন্য কয়েকবার ভারতে গিয়ে চিকিৎসা করিয়েছেন। কিন্তু এ রোগের চিকিৎসা ব্যয়বহুল হওয়ায় তার পরিবারের খরচ চালাতে হিমসিম খেতে হয়েছে। তার লিভারের প্রায় ৭০ শতাংশ অকেজো হয়ে পড়েছে। তাই যতো দ্রুত সম্ভব লিভার সংস্থাপন করা দরকার, যা খুবই ব্যয়বহুল ও ঝুঁকিপূর্ণ।

তাকে বাঁচাতে হলে আগামী ১০ থেকে ১৫ দিনের মধ্যেই অপারেশন করতে হবে। কেবল লিভার ট্রান্সপ্লান্ট বাবদই প্রয়োজন প্রায় ৪০ লাক টাকা। আনুষঙ্গিক খরচসহ সব মিলিয়ে প্রলয়কে বাঁচাতে প্রায় ৬০ লাখ টাকা প্রয়োজন।

এমন সংকটময় অবস্থায় প্রলয়ের চিকিৎসার জন্য আর্থিক সহায়তার মানবিক আবেদন জানিয়েছেন তার পরিবার, বিভাগের শিক্ষক, সহপাঠী ও বন্ধু-বান্ধবরা। এছাড়া প্রলয়ের প্রতি সমাজের বিত্তবান ও সহৃদয়বান ব্যক্তিদের সুদৃষ্টি দেওয়ারও আবেদন জানিয়েছেন তারা।

ইতোমধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের তার বন্ধু-বান্ধবরা বিভিন্ন ইভেন্টের মাধ্যমে ও ক্যাম্পেইন করে টাকা সংগ্রহের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। যাতে বৃত্তবানদের ও সমাজের সহৃদয়বান ব্যক্তিদের কাছ থেকে ভালোই সাড়া পাচ্ছেন বলে জানা যায়।

(নতুন কুমিল্লা/জেপি/কেএম/১৯ জুলাই ২০১৮)

আরও পড়ুন