কুমিল্লা
মঙ্গলবার,২০ অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
৪ কার্তিক, ১৪২৭ | ২ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪২

কুমিল্লা থেকে ২৭ রুটে আজও বাস চলাচল বন্ধ: ভোগান্তিতে যাত্রীরা

নগরীর কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল জাঙ্গালিয়া। ছবি: নতুন কুমিল্লা

কুমিল্লা মহানগরী থেকে ঢাকা-চট্টগ্রাম-সিলেটসহ মোট ২৭টি রুটে দূরপাল্লার বাস চলাচল শুক্রবার থেকে বন্ধ করে দিয়েছেন জেলা পরিবহন মালিক-শ্রমিকরা। চলমান ছাত্র আন্দোলনে দেশের বিভিন্ন স্থানে যানবাহন ভাংচুরের প্রতিবাদে ও শ্রমিকদের নিরাপত্তার দাবিতে এ ধর্মঘটের ডাক দেয়া হয়।

এতে এসব রুটের চলাচলকারী যাত্রীরা চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন। তবে অনেকে আবার বিকল্প হিসেবে রেলকে বেচে নিয়েছে। এ ক্ষেত্রে ট্রেনের পর্যাপ্ত টিকেট না থাকায় যাত্রীরা পড়ে চরম বিপাকে। বিশেষ করে মহিলা যাত্রীদের ক্ষেত্রে সীমাহীন দুর্ভোগের দৃশ্য শনিবার সকালে কুমিল্লা রেল স্টেশনে দেখা গেছে।

শনিবার সকালে সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, কুমিল্লা জাঙ্গালিয়া কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল, শাসনাগাছা, চকবাজার, পদুয়ারবাজার বিশ্বরোড, ক্যান্টনমেন্ট এলাকাসহ বিভিন্ন এলাকার কাউন্টারগুলোতে শুক্রবারের মত গাড়ির টিকেট বিক্রি বন্ধ রেখেছে। এতে করে যাত্রীদের চরম দুর্ভোগ পহাতে দেখা গেছে।

নগরীর পদুয়ার বাজার এলাকার আনোয়ার নামে এক ফল ব্যবসায়ি নতুন কুমিল্লাকে জানান, গত দুই দিনের পরিবহন ধর্মঘটে আমরা অনেকটাই বেকায়দায় পড়েছি। একদিকে মালের দাম বেড়েছে, অন্যদিকে ক্রেতা শূন্যতায় বিভিন্ন ফল নষ্ট হচ্ছে। এতে আমাদের গুনতে হচ্ছে বহু টাকা লোকসান।

মহাসড়কে যাত্রীদের মাহা ভোগান্তি।

নগরীর কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল জাঙ্গালিয়া এলাকায় সাইফুল আলম নামের এক যাত্রী নতুন কুমিল্লাকে বলেন, পরিবহন শ্রমিক মালিকদের এমনএমন সিদ্ধান্তের সাধারণ যাত্রীদের ভোগান্তি পহাতে হচ্ছে। সড়কে গাড়ি চালাতে গিয়ে তারা অন্যায় করে মানুষ মারে। অথচ উল্টো গাড়ি বন্ধ রেখে সাধারণ মানুষদের হয়রানি করছে।

শাহিন আলম নামে এক ব্যক্তি নতুন কুমিল্লাকে জানান, চিকিৎসার জন্য চৌদ্দগ্রাম থেকে পরিবার নিয়ে কুমিল্লায় যাওয়ার জন্য দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করে মাহাড়কে গাড়ি না পেয়ে বাড়িতে ফিরতে হয়েছে। এজন্য তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে নাম প্রকাশ না করার শর্তে জেলা পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের (৯৩৮) সাবেক এক নেতা নতুন কুমিল্লাকে জানান, দেশের বিভিন্ন স্থানে যানবাহন ভাঙচুর ও শ্রমিকদের নিরাপত্তার দাবিতে শুক্রবার সকাল থেকে এ ধর্মঘটের ডাক দেয়া হয়।

তবে এ ধর্মঘট কতদিন থাকবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটি কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তের উপর সবকিছু নির্ভর করবে।

(নতুন কুমিল্লা/কেএম/এইচএম/০৪ আগস্ট ২০১৮)

আরও পড়ুন