কুমিল্লা
সোমবার,২৫ মে, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
১১ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ | ১ শাওয়াল, ১৪৪১
শিরোনাম:
নাঙ্গলকোট থানা পুলিশের মাঝে হোমিও ঔষধ বিতরণ দেশে ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ১৭৭৩ জন শনাক্ত, মৃত্যু ২২ মুরাদনগরের পায়ব গ্রামে আমজাদ সরকারের উদ্যোগে ঈদ উপহার বিতরণ ২৪ ঘন্টায় নঙ্গলকোটে ২০ মাসের শিশুসহ করোনা আক্রান্ত ৮ জন করোনায় চৌদ্দগ্রামে পোল্ট্রি শিল্পে ক্ষতি ২৫ কোটি টাকা মুরাদনগরে ৯’শ পরিবারের পাশে শিক্ষার্থীদের সংগঠন জাগ্রত সিক্সটিন চান্দিনায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে ৭ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা কুমিল্লায় করোনা ভাইরাসে সিএনজি শ্রমিকদের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ কুমিল্লায় ইউথ ক্যাডেট ফোরামের পক্ষ থেকে ঈদ উপহার প্রদান কুমিল্লায় হিন্দু ছেলের প্রেমের ডাকে সাড়া দিয়ে ঘরছাড়লো মুসলিম মেয়ে রুমা

কুমিল্লায় ইউপি সদস্যকে হাতুড়িপেটা করলেন চেয়ারম্যান

কুমিল্লার আদর্শ সদর উপজেলার কালিরবাজার ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান ও তার সহযোগিরা ইউপি সদস্য ফারুক হাসান বশিরকে হাতুড়িপেটা করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার (৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে কালিরবাজার ইউনিয়নের ধনুয়াখলা ডিগ্রি কলেজে এ ঘটনা ঘটে। আহত ফারুক হাসান বশিরকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

তবে পুলিশ ও ইউপি চেয়ারম্যান বলছেন, স্থানীয় লোকজন ওই ইউপি সদস্যকে ইয়াবা ও অস্ত্রসহ ধরে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আদর্শ সদর উপজেলার ১নং কালিরবাজার ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সেকান্দর আলীর সঙ্গে ওই ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের সদস্য ফারুক হাসান বশিরের সঙ্গে গত ইউপি নির্বাচন নিয়ে পূর্ববিরোধ চলে আসছিল। এ নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে একাধিকবার মারামারির ঘটনা ঘটে। ওই বিরোধের জের ধরে চেয়ারম্যান ও তার লোকজন বৃহস্পতিবার দুপুরে ওই ইউনিয়নের হাতিগাড়া এলাকা থেকে ওই ইউপি সদস্যকে মারধর করে সিএনজিতে তুলে ধনুয়াখলা কলেজে নিয়ে যায়। এদিকে এ ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে বিকেলে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে।

আহত ইউপি সদস্য ফারুক হাসান বশির নতুন কুমিল্লাকে বলেন, চেয়ারম্যান সেকান্দরের সঙ্গে পূর্ব বিরোধের জেরে তিনি আমাকে মামলায় জড়িয়ে হয়রানি করে আসছিলেন। বৃহস্পতিবার ওই মামলায় হাজিরা দিয়ে বাড়ি ফেরার পথে হাতিগাড়া এলাকায় পৌঁছালে চেয়ারম্যান সেকান্দর, তার সহযোগী রাজু ও শাহীনসহ সংঘবদ্ধরা আমাকে মারধর করে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে কলেজের একটি কক্ষে আটকে রেখে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে আহত করে। তারা ঘটনাটি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে ইয়াবা ও অস্ত্র দিয়ে আমাকে ফাঁসানোর চেষ্টা করছে।

তবে এ বিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যান সেকান্দর আলী নতুন কুমিল্লাকে বলেন, বশির এলাকায় সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজি করে আসছিল। এসব ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়ে জনগণ তাকে আটকে রেখে মারধর করে। বিষয়টি জেনে আমি পুলিশ নিয়ে তাকে উদ্ধার করি।

কোতয়ালী মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আবু ছালাম মিয়া নতুন কুমিল্লাকে জানান, ওই ইউপি সদস্যের কাছ থেকে ২০০ পিস ইয়াবা, ৫ রাউন্ড গুলি ও একটি ম্যাগজিন উদ্ধার করা হয়েছে।

আরও পড়ুন