কুমিল্লা
সোমবার,৩ অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
১৮ আশ্বিন, ১৪২৯ | ৬ রবিউল আউয়াল, ১৪৪৪
শিরোনাম:
কুমিল্লায় ৭১১ রোগীকে বিনামূল্যে চিকিৎসা দিলেন ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন ইসলামী ব্যাংকের ফাস্ট এ্যসিসস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে নাজমুলের পদোন্নতি লাভ ‘গ্লোবাল ইয়ুথ লিডারশিপ’ অ্যাওয়ার্ড পেলেন তাহসিন বাহার কুমিল্লার সাবেক জেলা প্রশাসক নূর উর নবী চৌধুরীর ইন্তেকাল কাউন্সিলর প্রার্থী কিবরিয়ার বিরুদ্ধে অস্ত্র সরবরাহের অভিযোগ লাকসামে বঙ্গবন্ধু ফুটবল গোল্ডকাপে পৌরসভা দল বিজয়ী কুসিক নির্বাচন: এক মেয়রপ্রার্থীসহ ১৩ জনের মনোনয়ন প্রত্যাহার কুসিক নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন বিদ্রোহী প্রার্থী ইমরান স্বাস্থ্য সচেতনতার লক্ষ্যে কুমিল্লায় ঢাকা আহছানিয়া মিশনের মেলার আয়োজন কুসিকে মেয়র প্রার্থী রিফাতের নির্বাচন পরিচালনায় ৪১ সদস্যের কমিটি

ব্রাহ্মণপাড়ায় সংঘর্ষের ঘটনায় ৫০ জনের নামে মামলা

নিহত খোরশেদ আলম ও সানু মিয়া / নতুন কুমিল্লা

কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার শিদলাইয়ে সংঘর্ষে ২ ব্যক্তির প্রাণহানীর ঘটনায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে গ্রামটিতে। গ্রেফতার এড়াতে দু’পক্ষের লোকজনই বাড়ি ছাড়া রয়েছে। এছাড়াও হত্যাকা-ের বিষয়টিতে যেনো বাড়তি ঝামেলায় পড়তে না হয়; এজন্য গ্রামটির সাধারণ মানুষদের মাঝেও আতঙ্ক বিরাজ করছে।

পূর্ব শত্রুতার জের ধরে দুইগ্রুপের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে খোরশেদ আলম (৫০) এবং সানু মিয়া (৬২) নামের দুই ব্যাক্তি নিহত হওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্রাহ্মণপাড়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়। বিষয়টি জানিয়েছেন থানার অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ আবু মোঃ শাহজাহান কবির। তিনি জানান, গতকাল ৯ সেপ্টেম্বর নিহত খোরশেদ আলমের স্ত্রী নাছিমা আক্তার বাদী হয়ে প্রতিপক্ষের ১নং আসামী মফিজুল ইসলাম দুলাল সহ অর্ধশতাধিক লোককে এজাহার নামীয় এবং ৩০ থেকে ৩৫ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামী করে থানায় একটি হত্যা মামলাটি দায়ের করে। মামলা নং ১২, তারিখ ০৯/০৯/২০১৮ ইং। মামলার প্রেক্ষিতে পুলিশ তিনজন এজাহার নামীয় আসামীকে গ্রেফতার করেছে।

থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, রবিবার ব্রাহ্মণপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ আবু মোঃ শাহজাহান কবির এর নেতৃত্বে সঙ্গীয় ফোর্স সহ উপজেলার দক্ষিণ শিদলাই ৯ নং ওয়ার্ডে অভিযান পরিচালনা করে। এসময় ঐ এলাকা থেকে জাহাঙ্গীর আলমের ছেলে ইয়াছিন(২২), আবু মিয়ার ছেলে কাশেম (৫০) এবং শানু মিয়ার ছেলে রফিক (২০) কে গ্রেফতার করে হয়।

উল্লেখ্য যে, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে গত শনিবার সকালে অ্যামরিকা প্রবাসী শামছুল হক গ্রুপের লোকজন প্রতিপক্ষ মফিজ গ্রুপের বাড়ি ঘরে হামলা চালায়। এসময় খবর পেয়ে মফিজ গ্রুপের লোকজনও পাল্টা হামলায় লিপ্ত হয়। এতে দুই গ্রুপের নারী পুরুষসহ ১০ জন আহত হয়েছে। পরে এলাকাবাসী আহতদের উদ্ধার করে প্রথমে ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সহ বিভিন্ন হাসপালে ভর্তি করে। এঘটনায় শমছুল হক গ্রুপের মৃত আবদুল ওয়াদুধ মেম্বারের ছেলে খোরশেদ আলম (৫০) ঘটনাস্থলে নিহত হয় এবং একই দলের মৃত ছোবহানের ছেলে শানু মিয়া (৬২) কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপালে চিকিৎসাধিন অবস্থায় ঘটনার দিন সকালেই মারা যায়।

পরে একই দিনে শোরত হাল রিপোর্ট ও ময়না তদন্ত শেষে নিহত খোরশেদ আলমের লাশ তার নিজ গ্রামের পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয় এবং অপর দিকে একই দিনে নিহত শানু মিয়ার লাশ কুমিল্লা রেইসকোর্স এলাকায় দাফন করা হয়। বর্তমানে ঐ এলাকায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রাখতে ঘটনার দিন থেকেই ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন আছে।

আরও পড়ুন…
কুমিল্লায় আধিপত্যের জের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে নিহত ২

আরও পড়ুন