কুমিল্লা
বৃহস্পতিবার,২২ অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
৬ কার্তিক, ১৪২৭ | ৩ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪২

কুমিল্লায় প্রবাসীর স্ত্রীকে ৪ দিন আটকে রেখে গণধর্ষণ: গ্রেফতার ৪

প্রতীকী ছবি

কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলার সামবকশী এলাকায় এক প্রবাসীর স্ত্রীকে ৪ দিন আটকে রেখে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে সোমবার (১০ সেপ্টেম্বর) সদর দক্ষিণ মডেল থানায় মামলা করেছেন। এ ঘটনায় অভিযুক্ত ৪ জনকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে।

গ্রেফতাররা হলেন- সদর দক্ষিণ উপজেলার রাজেন্দ্রপুর গ্রামের ছায়েদ আলীর ছেলে মাসুদ (২৮), একই এলাকার আবদুল বারেকের ছেলে মাসুদ (৩০), ধনপুর এলাকার ছারু মিয়ার ছেলে সিএনজি চালক হাসান (২৬) এবং ধর্ষণে সহযোগিতাকারী বল্লভপুর গ্রামের সহিদ মিয়ার স্ত্রী স্বপ্না আক্তার (২৭)।

জানা যায়, গত ৫ সেপ্টেম্বর ওমান প্রবাসীর স্ত্রী ওই নারী তার বাপের বাড়ি জেলার সদর দক্ষিণ উপজেলার সুয়াগাজী এলাকা থেকে উলুরচর এলাকায় স্বামীর বাড়িতে ফিরতে একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশায় ওঠেন। কিন্তু অটোরিকশার চালক হাসান পথিমধ্যে সামবকশী এলাকায় এসে বল্লভপুর গ্রামের সহিদ নামে এক ব্যক্তির বাড়িতে নিয়ে যান ওই নারীকে। সেখানে আটকে রেখে টানা ৪ দিন যাবত তাকে গণধর্ষণ করা হয়।

এ সময় ওই গৃহবধূর বিভিন্ন অশ্লীল ছবি তুলে ৫ লাখ টাকা দাবি করা হয়। পরে গত ৮ সেপ্টেম্বর (শনিবার) কৌশলে পালিয়ে যান গণধর্ষণের শিকার ওই গৃহবধূ।

এ ঘটনায় ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে ৫ জনকে আসামি করে সোমবার সদর দক্ষিণ মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। পুলিশ এ মামলায় অভিযুক্ত ৪ জনকে গ্রেফতার করেছে।

সদর দক্ষিণ মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মামুনুর রশিদ নতুন কুমিল্লাকে জানান, প্রবাসীর স্ত্রীকে গণধর্ষণের ঘটনায় ৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অপর আসামি সহিদকে গ্রেফতারে পুলিশি তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে।

আরও পড়ুন