কুমিল্লা
মঙ্গলবার,১ ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
১৬ অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ | ১৪ রবিউস-সানি, ১৪৪২

চৌদ্দগ্রামে মধ্যযুগীয় কায়দায় গৃহবধূকে নির্যাতন

আহত ইয়াসমিন আক্তার/ ছবি: নতুন কুমিল্লা

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে মধ্যযুগীয় কায়দায় ইয়াসমিন আক্তার (২২) নামে এক গৃহবধুকে বর্বর শারীরিক নির্যাতন করেছে পাষন্ড স্বামী মনির হোসেন বাবলু। নির্যাতিত ইয়াসমিন উপজেলার মুন্সিরহাট ইউনিয়নের বাসন্ডা গ্রামের অটোরিকশা চালক ইয়াছিনের মেয়ে ও পাষন্ড বাবলু পাশ্ববর্তী বসন্তপুর গ্রামের পশ্চিম পাড়ার মিয়াজী বাড়ির নুর ইসলামের পুত্র। বর্তমানে গৃহবধু ইয়াসমিন চৌদ্দগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৭ সেপ্টেম্বর) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ইয়াসমিন অভিযোগ করে জানায়, গত মঙ্গলবার রাত আড়াইটার সময় মাদকাসক্ত পাষন্ড স্বামী বাবলু নেশাগ্রস্ত অবস্থায় বাসায় ফিরে চুল ধরে এলোপাতাড়ি কিল-ঘুষি ও লাথি মারে। এক পর্যায়ে তাকে ঘরের মেঝেতে আছড়ে মারে। ইয়াসমিনের চিৎকার শুনে পাশের কক্ষ থেকে তার শ্বশুর-শাশুড়ি তাকে উদ্ধার শেষে অন্যত্র সরিয়ে নেয়।

পরদিন বুধবার সকালে ইয়াসমিনের মা-বাবাকে খবর দিলে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তারা তাকে চৌদ্দগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। শারিরীক যন্ত্রণায় ইয়াসমিন হাসপাতালের বিছানায় কাতরাচ্ছে। তার শরীরের বিভিন্নস্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এঘটনায় পাষন্ড স্বামীর থানায় মামলা করা হবে বলে জানান ইয়াসমিনের পরিবার।

এ ব্যাপারে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ইয়াসমিনের স্বামী মনির হোসেন বাবলু নতুন কুমিল্লাকে জানায়, ‘আমাকে গালিগালাজ করলে রাগের মাথায় চড় থাপ্পড় দেই। তারা এখন আমার বিরুদ্ধে নানা কুৎসা ছড়াচ্ছে’।

আরও পড়ুন