কুমিল্লা
মঙ্গলবার,২০ অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
৪ কার্তিক, ১৪২৭ | ২ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪২

ফখর-সরফরাজে ঘুরে দাঁড়ানোর গল্প লিখল পাকিস্তান

পাকিস্তানকে রীতিমতো বিভিষিকা উপহার দিয়েছিলেন নাথাম লায়ন। ৬ বলে পাকিস্তানের ৪ উইকেট তুলে নিয়ে ঠেলে দিয়েছিলেন খাদের কিনানে। কিন্ত আবুধাবিতে মঙ্গলবার সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম দিনটি তারপরও পাকিস্তান নিজেদের করে নিয়েছে। ফখর জামান ও অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদের ব্যাটে ভর করে ঘুরে দাঁড়ানোর দারুণ গল্প লেখে দলটি। এরপর শেষ বিকেলে ব্যাটিংয়ে নামা অস্ট্রেলিয়ার ২ উইকেট তুলে নিয়ে সুখানুভূতি নিয়েই দিন শেষ করেছে পাকিস্তান। দুটি উইকেটই নিয়েছেন মোহাম্মদ আব্বাস।

টস জিতে আগে ব্যাট করতে নামা পাকিস্তান নিজেদের প্রথম ইনিংসে ২৮২ রান সংগ্রহ করে। ৫৭ রানে ৫ উইকেট হারানোর পরও সরফরাজ ও অভিষিক্ত ফখর নৈপুণ্যে তা সম্ভব হয়েছে। তবে দুজনেই সেঞ্চুরি বঞ্চিত হয়েছেন। ৯৪ রান করে আউট হয়েছেন দুজনই।

বিপরীতে প্রথম দিন শেষে ২০ রানে ২ উইকেট হারিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। উসমান খাজা ও নাইট ওয়াচম্যাচ পিটার সিডল ফিরে গেছেন।

নাথান লায়ন ২০তম ও ২২তম ওভারে গুড়িয়ে দেন পাকিস্তানের টপ অর্ডার। তুলে নেন আজহার আলি, হারিস সোহেল, আসাদ শফিক ও বাবর আজমের উইকেট। হারিস সোহেল ১৫ রান করেন। বাকী তিন জন ফিরেন শূন্য রানে। তার আগে শুরুতেই মোহাম্মদ হাফিজকে ফেরান মিচেল স্টার্ক। ফলে ৫৭ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে ফেলে পাকিস্তান।

এরপর হাল ধরলেন অভিষিক্ত ফখর ও সরফরাজ। ষষ্ঠ উইকেটে দুজনে ১৪৭ রান যোগ করেন। কিন্তু ফখরকে অভিষেক টেস্টেই নার্ভাস নাইনটিজে কাটা পড়তে হয়েছে। মারনাস লাবুচানে শিকার হয়ে ফিরেন তিনি। ১৯৮ বলে ৮ চার ও ১ ছক্কায় ৯৪ রান করে এই ওপেনার।

সপ্তম ও অস্টম উইকেটে যথাক্রমে ২২ ও ২১ রানের দুটি জুটি উপহার দেন সরফরাজ। তিনিও ৯৪ রান করে কাটা পড়েছেন সেই মারনাস লাবুচানের বলে। ১২৯ বলে ৭ চারে ৯৪ রান করেন পাকিস্তান অধিনায়ক। শেষ দিকে ইয়াসির শাহর ২৮ রান ছিল দারুণ কার্যকর।

অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে সর্বাধিক ৪ উইকেট নেন নাথান লায়ন। এদিন অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে টেস্টে সর্বাধিক উইকেট শিকারে ব্রেট লি ও মিচেল জনসনকে ছাড়িয়ে গেছেন লায়ন। ৩১৪ উইকেট নিয়ে এখন তালিকার চতুর্থ স্থানে লায়ন। তার উপরে থাকা তিন জন হলেন ড্যানিস লিলি (৩৫৫), গ্লেন ম্যাকগ্রা (৫৬৩) ও শেন ওয়ার্ন (৭০৮)।

শেষ বিকেলে অস্ট্রেলিয়ার ইনিংসে খেলা হয়েছে মোট ৭ ওভার। প্রথম চার ওভার ভালোভাবে কাটালেও পঞ্চম ওভারে খাজাকে তুলে নেন মোহাম্মদ আব্বাস। পরের ওভারে দিনের শেষ বলে ফিরিয়ে দেন নাইট ওয়াচম্যান পিটার সিডলকে।

আরও পড়ুন