কুমিল্লা
বুধবার,২৮ অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
১২ কার্তিক, ১৪২৭ | ১০ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪২

নির্বাচনে অংশ না নেয়ার সিদ্ধান্তে সাকিব আল হাসান

একাদশ জাতীয় নির্বাচনে আওয়ামী লীগের হয়ে নির্বাচন করবেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা এবং টেস্ট অধিনায়ক সাকিব আল হাসান- এমন খবর গতকাল চাউর হয়। যদিও এ আভাস দেওয়া হয়েছিল আরো কয়েক মাস আগে।

আজ রবিবার সকাল ১০টায় মাগুরা-১ আসনে সাকিব এবং নড়াউল-২ আসনে মাশরাফির মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করার কথা গতকাল জানান আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

কিন্তু শনিবার গভীর রাতে জানা যায়, সাকিব আল হাসান নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন না। বিষয়টি তিনি নিজেই গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেন। বলেন, তিনি সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করেছেন।

তবে একটি অসমর্থিত সূত্র জানিয়েছে, শনিবার দিবাগত রাতে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে যান ক্রিকেট তারকা সাকিব আল হাসান। এ সময় মনোনয়ন নেয়ার ইচ্ছা ব্যক্ত করলে প্রধানমন্ত্রী তাকে বিশ্বকাপে নজর দেয়ার জন্য বলেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘ক্রিকেটকে তোমার অনেক কিছু দেয়ার আছে।’ এরপরই মূলত আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম কেনার অবস্থান থেকে সরে আসেন সাকিব।

তবে সাকিব তার নির্বাচনী ভাবনা থেকে সরে এলেও মাশরাফি নির্বাচন করার সিদ্ধান্তে অটল আছেন কি না, কিংবা সিদ্ধান্ত পরিবর্তনের কথা ভাবছেন কি না তা জানা যায়নি।

এর আগে শনিবার আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জানান, আগামীকাল রবিবার সকাল ১০টায় তারা (মাশরাফি বিন মর্তুজা ও সাকিব আল হাসান) ধানমন্ডি কার্যালয়ে এসে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করবেন।

উল্লেখ্য, চলতি বছরের মে মাসের শেষ দিকে পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল ক্রিকেটার মাশরাফি বিন মুর্তজা ও সাকিব আল হাসানের নির্বাচন করার বিষয়ে প্রথম আভাস দেন।

আরও পড়ুন