কুমিল্লা
সোমবার,২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
১৩ ফাল্গুন, ১৪৩০ | ১৫ শাবান, ১৪৪৫
শিরোনাম:
অভি’কে সিইও হিসেবে অনুমোদন দিলো আইডিআরএ কুমিল্লায় ৭১১ রোগীকে বিনামূল্যে চিকিৎসা দিলেন ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন ইসলামী ব্যাংকের ফাস্ট এ্যসিসস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে নাজমুলের পদোন্নতি লাভ ‘গ্লোবাল ইয়ুথ লিডারশিপ’ অ্যাওয়ার্ড পেলেন তাহসিন বাহার কুমিল্লার সাবেক জেলা প্রশাসক নূর উর নবী চৌধুরীর ইন্তেকাল কাউন্সিলর প্রার্থী কিবরিয়ার বিরুদ্ধে অস্ত্র সরবরাহের অভিযোগ লাকসামে বঙ্গবন্ধু ফুটবল গোল্ডকাপে পৌরসভা দল বিজয়ী কুসিক নির্বাচন: এক মেয়রপ্রার্থীসহ ১৩ জনের মনোনয়ন প্রত্যাহার কুসিক নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন বিদ্রোহী প্রার্থী ইমরান স্বাস্থ্য সচেতনতার লক্ষ্যে কুমিল্লায় ঢাকা আহছানিয়া মিশনের মেলার আয়োজন

কুমিল্লায় দাফনের সাড়ে ৩ মাস পর লাশ উত্তোলন

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার সদর ইউনিয়নের দিলালপুর গ্রামের মৃত আব্দুল জব্বারের ছেলে আলম সরকারে (৪৭) মৃত্যুর রহস্য উদঘাটনে দাফনের তিন মাস ১৪ দিন পর আদালতের নির্দেশে কবর থেকে লাশ উত্তোলন করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৩ নভেম্বর) দুপুরে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) রায়হান মেহবুবের উপস্থিতিতে লাশ উত্তোলন করেন সদর উপজেলার দিলালপুর কুমিল্লা পুলিশ ব্যুারো অব ইনভেস্টিগেশন(পিবিআই)।

মামলার অভিযোগ ও মৃত আলমের স্ত্রীর সাথে কথা বলে জানাযায়, ১৪ বছর প্রবাস জীবনের সকল উপার্জন তার বড় ভাই আব্দুল বাতেনের ব্যাংক একাউন্টে পাঠায় আলম। বিদেশ থেকে ফেরৎ এসে সেই টাকার হিসেব চাইলে দুই ভাইয়ের মধ্যে দূরত্ব সৃষ্টি হয়। পরে পৈতৃক জমি ভাগ বাটোয়ারা নিয়েও পারিবারিক দ্বন্দ্বের যেরে মৃত আলম স্ত্রী ও চার কন্যা সন্তান নিয়ে আলাদা বসবাস করছিলেন এবং জীবিকার তাগিদে স্থানীয় বাজারে একটি চায়ের দোকান দেন।

গত ৩০ জুলাই সোমবার সকালে তার স্ত্রী সালমা আক্তার দোকানে গিয়ে স্বামীর মৃতদেহ দেখতে পায়। তার পাশে ছেড়া বালিশ শরীরে আঘাতের চি‎হ্ন দেখে সালমা মনে করেন, স্বামীকে হত্যা করা হয়েছে। ফলে সালমা আক্তার ভাশুর আবদুল বাতেন ও তার দুই ছেলে হাসান এবং মামুনের নামে কুমিল্লা আদালতে অভিযোগ দায়ের করেন। স্ত্রী লাশ উত্তোলন পূর্বক ময়না তদন্তের জন্য কুমিল্লার ৮নং আমলী আদালতে আবেদন করেন।

আদালতের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্টেট মো.ইফরানুর রহমান চৌধুরি লাশ উত্তোলন পূর্বক ময়না তদন্তের নির্দেশ প্রদান করেন এবং রহস্য উদঘাটনের জন্য কুমিল্লা পুলিশ ব্যুারো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) কে দায়িত্ব দওেয়া হয়।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পিবিআই পুলিশের উপ-সহকারী বেলাল আাহমেদ নতুন কুমিল্লাকে বলেন, ময়নাতদন্তের জন্য লাশ উত্তোলন করেছি। রির্পোটের আলোকেই আমাদের পরবর্তী কর্মসুচি নিবো।

আরও পড়ুন