কুমিল্লা
বৃহস্পতিবার,২২ অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
৬ কার্তিক, ১৪২৭ | ৪ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪২

কুমিল্লায় ব্যবসায়ী হত্যা মামলায় ৫ জনের মৃত্যুদণ্ড

কুমিল্লার লাকসামে ১৪শ’ টাকার জন্য তিন কাঁচামাল ব্যবসায়ীকে গলাকেটে হত্যার ঘটনায় ৫ আসামিকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। বুধবার (১৪ নভেম্বর) কুমিল্লার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ চতুর্থ আদালতের বিচারক নূরনাহার বেগম শিউলী এই রায় দেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- লাকসাম শ্রীয়াং এলাকার আব্দুল কাদেরের (চোরা কাদের) ছেলে আব্দুর রহমান (২৫), ইয়াকুব আলীর ছেলে মো. শহিদুল্লাহ সহিদ (২৭), আবদুল মান্নানের ছেলে ফারুক হোসেন (৩০), মো. সেলিমের ছেলে মো. রাসেল (৩০) এবং মোহাম্মদ উল্লাহ’র ছেলে মো. স্বপন (৩০)। আসামিরা পালাতক রয়েছেন বলে জানা গেছে।

আদালত সূত্র জানায়, ২০০৭ সালের ৬ জানুয়ারি লাকসাম উপজেলার শ্রীয়াং বাজারে দোকান বন্ধ করে কাঁচামাল ব্যবসায়ী উত্তম দেবনাথ (২৭), পরীক্ষিত দেবনাথ (১২) এবং পান ব্যবসায়ী বাচু মিয়া (৩৫) ভ্যানে করে বাড়ি ফিরছিলেন। রাত ১২টার সময় লাকসামের শ্রীয়াং এবং রাজাপুর রাস্তার বদিরপুকুর নামক স্থানে পৌঁছালে দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা ডাকাত পরিচয় দিয়ে মাত্র ১৪শ’ টাকার জন্য রাস্তার পাশে ফসলি জমিতে নিয়ে তিনজনকে গলাকেটে হত্যা করে। নিহত উত্তম ও পরীক্ষিত দেবনাথ মনোহরগঞ্জ উপজেলা প্রতাপপুর গ্রামের মণিন্দ্র দেবনাথের ছেলে। এছাড়া বাচ্চু মিয়া লাকসাম জগতপুর গ্রামের সামছুল হকের ছেলে।

এরপর ওই বছরের ৭ জানুয়ারি নিহত বাচ্চুর ছোট ভাই কবির হোসেন বাদী হয়ে লাকসাম থানায় অজ্ঞাতদের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরবর্তীতে দীর্ঘ ১০ মাস তদন্ত শেষে লাকসাম থানা পুলিশ পাঁচজনকে আসামি করে আদালতে একটি অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

এই মামলার রাষ্ট্র পক্ষের আইনজীবী ছিলেন, অ্যাড. মো. আবু তাহের এবং পালাতক আসামিদের আইনজীবী ছিলেন অ্যাড. নাঈমা সুলতানা মুন্নি।

আরও পড়ুন