কুমিল্লা
মঙ্গলবার,২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
১৪ আশ্বিন, ১৪২৭ | ১১ সফর, ১৪৪২

কুমিল্লায় যৌতুক মামলায় প্রধান শিক্ষক কারাগারে !

স্ত্রীর দায়ের করা যৌতুকের মামলায় কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার আকুবপুর ইয়াকুব আলী ভুইয়া পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিল্লাল হোসেনকে গ্রেফতারপূর্বক কারাগারে পাঠিয়েছে বাঙ্গরা বাজার থানা পুলিশ। তার বিরুদ্ধে নারী নির্যাতনের অভিযোগে চট্টগ্রামের একটি আদালতে মামলা রয়েছে বলে জানা গেছে। বিল্লাল হোসেন ওই গ্রামের মৃত আলী আহাম্মদের ছেলে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, বিল্লাল হোসেন (৪০) তার স্ত্রী মারা যাওয়ার কথা বলে প্রতারণার মাধ্যমে ২০১৫ সালের ১ জানুয়ারি চট্টগ্রামের খুলশী থানার জালালাবাদ এলাকার শেখ আহাম্মদের মেয়ে লাকী আক্তার ওরফে রুমাকে (২৬) শরিয়ত মতে বিয়ে করেন। পরে ওই এলাকায় একটি বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস করতে থাকে। কিছুদিন পর তার প্রথম স্ত্রী জীবিত থাকার বিষয়টি জানাজানি হলে তাদের মধ্যে পারিবারিক কলহ সুষ্টি হয়। এরমধ্যে লাকী আক্তার ওরফে রুমা একটি কন্যা সন্তান জন্ম দেন। পরবর্তীতে স্ত্রীতো দুরের কথা ওই কন্যা সন্তানটির কোন প্রকার খোঁজ খবর নেয়নি বাবা বিল্লাল হোসেন। পরে ওই কন্যা সন্তানটি চিকিৎসার অভাবে মারা যায় বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়।

ইতিমধ্যে তাদের স্বজনরা বিষয়টি মিটমাট করে দিলে ব্যবসা করার কথা বলে গত ১০ জানুয়ারি স্বশুর বাড়ি থেকে এক লক্ষ টাকা আনে বিল্লাল হোসেন। কিছুদিন যেতে না যেতেই আবারো আরো এক লাখ টাকা এনে দেওয়ার জন্য স্ত্রীকে চাপ দেয়। টাকা এনে দিতে রাজি না হওয়ায় বিল্লাল হোসেন তার স্ত্রী লাকী আক্তার ওরফে রুমাকে গত ১৮ ফেব্রুয়ারি সকালে প্রচন্ড মারধর করে। এতে সে গুরতর আহত হলে স্বজনরা তাকে চিকিৎসা দিয়ে সুস্থ্য করে তোলে। বিষয়টি উভয় পক্ষের লোকজনের সহায়তায় মিমাংসা করার চেষ্টা করেও বিল্লাল হোসেন রাজি না হওয়ায় সম্ভব হয়নি। পরে বাধ্য হয়ে লাকী আক্তার ওরফে রুমা গত ২৭ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রাম মেট্টো পলিটন ম্যাজিষ্ট্রেট এর ৪নং আমলী আদালতে একটি অভিযোগ করেন।

আদালতের বিচারক বিষয়টি তদন্ত করে প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য খুলশী থানা পুলিশকে নির্দেশ দেয়। সে মতে অভিযোগটির সত্যতার প্রতিবেদন দিলে বিচারক আসামী বিল্লাল হোসেনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করে।

বাঙ্গরা বাজার থানার পুলিশ দুপুরে আকুবপুর ইয়াকুব আলী ভুইয়া পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিল্লাল হোসেনকে গ্রেফতারপূর্বক সোমবার দুপুরে কুমিল্লার কেন্দ্রিয় কারাগারে প্রেরণ করে।

বাঙ্গরা বাজার থানার ওসি মিজানুর রহমান মাষ্টার বিল্লাল হোসেনকে গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করে নতুন কুমিল্লাকে জানান, তার বিরুদ্ধে চট্টগ্রাম মেট্টো পলিটন ৪নং আমলী আদালত কর্তৃক নারী নির্যাতন মামলার একটি ওয়ারেন্ট ছিল।

আরও পড়ুন