কুমিল্লা
সোমবার,৩ অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
১৮ আশ্বিন, ১৪২৯ | ৬ রবিউল আউয়াল, ১৪৪৪
শিরোনাম:
কুমিল্লায় ৭১১ রোগীকে বিনামূল্যে চিকিৎসা দিলেন ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন ইসলামী ব্যাংকের ফাস্ট এ্যসিসস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে নাজমুলের পদোন্নতি লাভ ‘গ্লোবাল ইয়ুথ লিডারশিপ’ অ্যাওয়ার্ড পেলেন তাহসিন বাহার কুমিল্লার সাবেক জেলা প্রশাসক নূর উর নবী চৌধুরীর ইন্তেকাল কাউন্সিলর প্রার্থী কিবরিয়ার বিরুদ্ধে অস্ত্র সরবরাহের অভিযোগ লাকসামে বঙ্গবন্ধু ফুটবল গোল্ডকাপে পৌরসভা দল বিজয়ী কুসিক নির্বাচন: এক মেয়রপ্রার্থীসহ ১৩ জনের মনোনয়ন প্রত্যাহার কুসিক নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন বিদ্রোহী প্রার্থী ইমরান স্বাস্থ্য সচেতনতার লক্ষ্যে কুমিল্লায় ঢাকা আহছানিয়া মিশনের মেলার আয়োজন কুসিকে মেয়র প্রার্থী রিফাতের নির্বাচন পরিচালনায় ৪১ সদস্যের কমিটি

মনোহরগঞ্জে উঠান বৈঠকে মোঃ তাজুল ইসলাম এমপি:

লাকসাম-মনোহরগঞ্জে শতভাগ উন্নয়ন করেছি, শতভাগ ভোট চাই

উঠান বৈঠকে বক্তব্য রাখেন মোঃ তাজুল ইসলাম এমপ/ ছবি: নতুন কুমিল্লা

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কুমিল্লা-০৯ (লাকসাম-মনোহরগঞ্জ) আসনে আওয়ামীলীগের মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মোঃ তাজুল ইসলাম এমপি বলেছেন, এই আসনে অতীতে যারা এমপি ছিল তারা মানুষকে ধোকা দিয়ে ভোট নিয়ে জনগণের কোন উন্নয়ন করেননি। আমি এমপি নির্বাচিত হয়ে জনগণের হক জনগণকে বুঝিয়ে দিয়েছি। বিগত ১৫বছর আমার নির্বাচনী আসনে কোটি কোটি টাকার উন্নয়ন কর্মকান্ড বাস্তবায়ন করেছি।

এমন কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, মসজিদ-মাদ্রাসা নেই যেখানে অনুদান দেইনি। প্রত্যেকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নতুন নতুন ভবন নির্মাণ করা হয়েছে। আমার নির্বাচনী আসনের অসংখ্য রাস্তা পাকাকরণ করা হয়েছে, শত শত ব্রীজ, কালর্ভাট নির্মাণ করা হয়েছে। লাকসামকে শতভাগ বিদ্যুতায়ন ঘোষণা করা হয়েছে। খুব শীঘ্রই মনোহরগঞ্জ উপজেলাকেও শতভাগ বিদ্যুতায়ন ঘোষণা করা হবে।

কুমিল্লা জেলা জুড়ে একাশদ নির্বাচনের সব খবর জানুন এক ক্লিকে

লাকসাম-মনোহরগঞ্জের উন্নয়ন আর আপনাদের সমস্যা সমাধানে দিন-রাত শ্রম দিয়েছি। আপনাদের জন্য কাজ করতে গিয়ে নিজের পারিবারিক জীবন বিসর্জন দিয়েছি। আসন্ন নির্বাচনে ভোটের দিন আমি আপনাদের জন্য ব্যয় করা শ্রমের মূল্য চাই। লাকসাম-মনোহরগঞ্জে শতভাগ উন্নয়ন করেছি, শতভাগ ভোট চাই। আর উন্নয়ন প্রতিদান হিসেবে আপনাদেরকে ভোট কেন্দ্র পাহারার দায়িত্ব দিতে চাই। ৩০ তারিখ লাকসাম-মনোহরগঞ্জের সাধারণ জনগণকে কর্মীর ভূমিকায় দেখতে চাই। সেই সাথে ৩০ ডিসেম্বর সারাদিন নৌকা মার্কায় ভোট দিন।

বুধবার (১২ ডিসেম্বর) মনোহরগঞ্জ উপজেলার হাসনাবাদ ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে ও বাইশগাঁও ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে উঠান বৈঠকে তিনি এসব কথা বলেন। এসময় তিনি আরো বলেন, যারা মানুষের হক লুটে খেয়েছে, তাদের ভোট চাওয়ার অধিকার নাই। আগুণ সন্ত্রাস করে যারা শত শত জীবন্ত মানুষ পুড়িয়েছে সেই বিএনপি-জামাতকে আর ভোট দেওয়া যাবে না। তিনি বলেন, বিগত দিনে বিএনপি ভোট নিয়ে মানুষের সাথে প্রতারণা করেছে, জনগণের উন্নয়ন না করে নিজেদের উন্নয়ন করেছে।

এসময় জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা প্রফেসর গোলাম মোস্তফা উঠান বৈঠকে উপস্থিত থেকে বলেন, লাকসাম-মনোহরগঞ্জে জাতীয় পার্টির কোন প্রার্থী না থাকায় মহাজোটের শরীক হিসেবে আমরা জাতীয় পার্টির নেতা কর্মীরা মো: তাজুল ইসলাম এমপিকে সমর্থন জানাচ্ছি। সেই সাথে এই আসনে যারা জাতীয় পার্টি করেন তাদেরকে আহবান জানাচ্ছি যাতে ৩০ ডিসেম্বর নৌকা প্রতীকে ভোট দেয়। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মাষ্টার আবদুল কাইয়ুম চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন, কুমিল্লা জেলা পরিষদের সদস্য এডভোকেট তানজিনা আক্তার, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক আবদুল মজিদ খান রাজু, সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল বাশার মজুমদার, হাসনাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান কামাল হোসেন, বাইশগাঁও ইউপি চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন,

উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক দেওয়ান জসীম উদ্দীন, যুগ্ন আহবায়ক জানে আলম, এমএইচ নোমান, মহিউদ্দিন, আমির হোসেন, হাসনাবাদ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের আহবায়ক হাজী নুরুল ইসলাম, আওয়ামীলীগ নেতা মাষ্টার শাহজাহান, ডাঃ মুক্তার হোসেন, মোস্তফা কামাল মোহাম্মদ আলী, লায়ন গাজী গোলাম সরওয়ার, আবুল কালাম, মহরম আলী, মনির আহম্মদ, বাইশগাঁও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের আহবায়ক হাজী অহিদ উল্যাহ পাটোয়ারী, যুগ্ন আহবায়ক আবুল আয়েস ভূঁইয়া, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের আহবায়ক সেলিম কাদের চৌধুরী, যুগ্ন আহবায়ক রুহুল আমিন, যুবলীগ নেতা শাহাদাত হোসেন, জসীম উদ্দীন, জাকির হোসেন, সাইফুল ইসলাম, মাসুদ ওয়াসিম, মুক্তার হোসেন, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোশারফ হোসেন বাবলু, সহ সভাপতি মোঃ আলী আক্কাস,

সহ সভাপতি মোঃ আমিরুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক নূরে আলম ছিদ্দিকী, ছাত্রলীগ নেতা শিমুল খান, আজিম উদ্দিন বাহার, আবদুল্লাহ আল মামুন, তৌহিদুল ইসলামসহ উপজেলা ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ, ছাত্রলীগ, মহিলা আওয়ামীলীগ, শ্রমিকলীগসহ সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

আরও পড়ুন