কুমিল্লা
মঙ্গলবার,২ মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
১৭ ফাল্গুন, ১৪২৭ | ১৭ রজব, ১৪৪২

কুমিল্লায় বিএনপির প্রার্থীর গণসংযোগে হামলা: গাড়ী ভাংচুর

বিএনপি প্রার্থী অধ্যাপক ইউনুছের ভাংচুরকৃত গাড়ী, ইনসেটে আহত ড. মেহেদী হাসান সুমন / ছবি: নতুন কুমিল্লা

কুমিল্লা-৫ (বুড়িংচ-ব্রাহ্মনপাড়া) নির্বাচনী এলাকায় বিএনপির মনোনীত প্রার্থী অধ্যাপক মোঃ ইউনুছের গাড়ী বহরে বৃহস্প্রতিবার (২৭ ডিসেম্বর) দুপুর ২টার দিকে নৌকা সমর্থিতরা হামলা করে ব্যাপক ভাংচুর করেছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে প্রার্থীর ছেলেসহ অন্তত ৬জন।

বিশ দলীয় জোটের বুড়িচং উপজেলার আহবায়ক মোঃ কবির হোসেন এবং বুড়িচং উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মোঃ কামাল হোসেন জনান, আজ দুপুর ২টার দিকে বিএনপির প্রার্থী অধ্যাপক মোঃ ইউনুছ উপজেলার মোকাম ইউনিয়নের তালপুকুরপাড় এলাকায় গণসংযোগ শেষে স্থানীয় মসজিদে যোহর নামায আদায় করে বের হলে আওয়ামীলীগের ১৫/২০ জন নেতা-কর্মী দেশীয় অস্ত্র ও লাঠিসোটা নিয়ে হামলা করে। এসময় তারা লাঠি দিয়ে পিটিয়ে ধানের শীষের প্রার্থীর ব্যবহৃত গাড়ীটিও ভাংচুর চালায়।

আরও পড়ুন: এক ক্লিকে একাদশ নির্বাচনের কুমিল্লা জেলার সব খবর

এসময় অধ্যাপক মোঃ ইউনুছের উপর হামলা করতে আসা আওয়ামীলীগের নেতা-কর্মীদের বাঁধা প্রদান করলে তাদের হামলায় প্রার্থীর ছেলে ড. মেহেদী হাসান সুমন, উপজেলা বিএনপির সহ-সভাপতি আব্দুল ওয়াহেদ সোয়া মেম্বার,কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা সেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক সবুজ,মোকাম ইউনিয়ন যুবদলের সভাপতি মোঃ আমিন,গাড়ীর ড্রাইভার আলমঘীর হোসেনসহ ৫/৬ আহত হয়েছে।

বিএনপির প্রার্থী অধ্যাপক মোঃ ইউনুছের বড় ছেলে ড. নাজমুল হাসান শাহীন জানান, তার বাবার উপর এই ধরনের ন্যাক্কারজন ও কাপুরুষের মতো আক্রমন করা এটা কোন সুস্থ নির্বাচনী পরিবেশ নয়। আমরা সহকারী রিটানিং অফিসার ও বুড়িচং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অনুমতি সাপেক্ষে জনগনের নিকট যাচ্ছি এবং গণসংযোগ করছি। কিন্ত প্রতিপক্ষ আমাদেরকে কোন ভাবে কাজ করতে দিচ্ছে না। এই হামলাকারীদের গ্রেফতার ও ন্যায্য বিচারের জন্য সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের দৃষ্টি কামনা করছি।

ধানের শীষের প্রার্থী সাবেক এমপি অধ্যাপক ইউনুছের গণসংযোগের সময় আওয়ামীলীগের হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে বুড়িচং উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান এটিএম মিজানুর রহমান,ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা বিএনপির সভাপতি মোঃ জসিম উদ্দিন,বুড়িচং উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মোঃ কামাল হোসেন,জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতা অধ্যাপক মোঃ আবদুল আউয়াল।

ব্রাহ্মনপাড়া উপজেলা জামায়াতের আমীর মাওলানা মোঃ মিজানুর রহমান আতিকি জানান, ব্রাহ্মনপাড়া উপজেলার মাদবপুর ইউনিয়নের রানীগাছ গ্রামের জামায়াত নেতা মাহাবুবুর রহমানের বাড়ীতে হামলা করে ব্যাপক ভাংচুর করেছে এবং উপজেলার নাগাইশ গ্রামের ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি আঃ লতিফ মেম্বারকে পুলিশ আটক করেছে।

আরও পড়ুন