কুমিল্লা
রবিবার,৯ মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
২৬ বৈশাখ, ১৪২৮ | ২৬ রমজান, ১৪৪২

লাকসামে পিতার কর্মস্থলে মেয়ে ধর্ষিত: আটক এক

প্রতীকী ছবি

লাকসামে পিতার কর্মস্থলে মালিক কর্তৃক এক কিশোরীকে (১৬) ধর্ষণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় আজ শুক্রবার (৪ জানুয়ারি) ওই কিশোরীর পিতা বাদী হয়ে লাকসাম থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার উত্তরদা ইউনিয়নের কৃষ্ণপুর এলাকায়।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ওই কিশোরীর পিতা আবুল কাশেম খাঁন বেশ কিছুদিন ধরে কৃষ্ণপুর এলাকায় তাজুল ইসলাম মজুমদারের (৪২) মাছের পুকুরে পাহারাদারের কাজ করতো। পুকুরের পাশেই একটি টিনের ঘরে পিতা-মাতা ও এক ভাইসহ বসবাস করতো ওই কিশোরী। গত ৩ জানুয়ারি রাত সাড়ে ১০টার দিকে পুকুরের মালিক তাজুল ইসলাম মজুমদার কৌশলে ঘরের উত্তর পাশে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।

এ সময় কিশোরীর মা হোসনে আরা বেগম ঘুমিয়ে ছিলেন এবং পিতা পুকুর পাহারায় ব্যস্ত ছিলো। ঘটনার পর কিশোরী কান্নাকাটি করতে থাকে। কিশোরীর ভাই ফিরোজ মাহমুদ বাইরে থেকে এসে কান্নার কারণ জানতে চাইলে তাজুল ইসলাম তাকে মারতে আসে। একপর্যায়ে উভয়ে ধস্তাধস্তিতে জড়িয়ে পড়ে। পরে এ ঘটনা কাউকে জানালে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে তাজুল ইসলাম সটকে পড়ে।

অভিযুক্ত তাজুল ইসলাম মজুমদার কৃষ্ণপুর এলাকার মৃত আবু তাহের মজুমদারের ছেলে।

এদিকে, শুক্রবার ঘটনাটি স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান হারুনুর রশিদকে জানালে তিনি আইনের আশ্রয় নেয়ার পরামর্শ দেন। পরে কিশোরীর পিতা আবুল কাশেম খাঁন বাদী হয়ে লাকসাম থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। পরে লাকসাম থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে লম্পট তাজুল ইসলাম মজুমদারকে গ্রেপ্তার করে।

এ বিষয়ে লাকসাম থানার পরিদর্শক (তদন্ত) নজরুল ইসলাম নতুন কুমিল্লাকে জানান, ভিকটিমের শারীরিক পরীক্ষাসহ ঘটনাটি তদন্ত করা হচ্ছে। অভিযুক্ত আসামি তাজুল ইসলাম মজুমদারকে (৪২) গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আগামীকাল (শনিবার) তাকে কুমিল্লা আদালতের মাধ্যমে করাগারে পাঠানো হবে।

আরও পড়ুন