কুমিল্লা
শুক্রবার,১৫ নভেম্বর, ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ
১ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ | ১৭ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১
Bengali Bengali English English

কুবিতে ছাত্রলীগের এক শিক্ষার্থীকে মারধরের অভিযোগ

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে (কুবি) মার্কেটিং বিভাগের ২০১৬-১৭ সেশনের জাহিদুল ইসলাম নামের এক শিক্ষার্থীকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে বিশ্ববিদ্যালয়টির শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে। সোমবার (৭ জানুয়ারি) দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ক্যাফেটেরিয়ায় এ ঘটনা ঘটে।

শিক্ষার্থীরা জানান, দুপুর ২ টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ক্যাফেটেরিয়ায় দুপুরের খাবার খেতে যায় অভিযোগ করা শিক্ষার্থী। খাবার খাওয়ার পর হাত ধুরায় সময় নাম না জানা এক বড় ভাইয়ের সাথে কথা হচ্ছিল। এমন সময় কোনো কারণ ছাড়াই শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত হলের ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ও বিশ্ববিদ্যালয়ের এক্যাউন্টিং এন্ড ইনফেমেশন সিস্টেমস বিভাগের শিক্ষার্থী রাফিউল আলম দীপ্ত তাকে চড়-থাপ্পড় মারতে থাকেন। সে সময় জুনায়েদ ও মিঠুনসহ (২০১৬-১৭) সেশনের কয়েকজন শিক্ষার্থী ক্যাফেটেরিয়ায় অন্যান্য শিক্ষার্থীদের সামনে আমাকে আঘাত করে।

এদিকে আহত শিক্ষার্থীকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টারে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজে উন্নত চিকিৎসা নিতে পরামর্শ দেন। আহত শিক্ষার্থী জাহিদুল ইসলাম বলেন,’আমাকে কোনো কারণ ছাড়া মারছে। আমি চাই যারা আমাকে বিনা কারণে মারছে তাদের সর্বোচ্চ শাস্তি হোক। যার ফলে ভবিষ্যতে এমন ঘটনা আর না ঘটে।’

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে রাফিউল আলম দীপ্ত বলেন,অভিযোগকারী শিক্ষার্থী হাত ধুতে যেয়ে ময়লা লাগিয়ে দেয়। পরবর্তীতে তাকে ব্যাচ জানতে চাইলে আমাদের সাথে তর্ক করে। এক পর্যায়ে তাকে একটা চড় দিয়ে ক্যাফেটেরিয়া থেকে বের করে দেয়া হয়।’

ছাত্রলীগ নেতা কর্তৃক সাধারণ শিক্ষার্থীকে মারধরের বিষয়ে জানতে চাইলে শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল ইসলাম মাজেদ নতুন কুমিল্লাকে বলেন, ‘আমি বিষয়টি জানতাম না। যদি ঘটনা সত্য হয় তাহলে অভিযোগ তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. কাজী মোহাম্মদ কামাল উদ্দিন নতুন কুমিল্লাকে বলেন,’আমার কাছে অভিযোগ জমা দেয়া হয়েছে। আগামীকাল (মঙ্গলবার) অভিযোগে দেখে প্রক্টরিয়াল বডি ব্যবস্থা নিবে।’

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের ১৯ জুলাই বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং বিভাগের নবম ব্যাচের শিক্ষার্থী ইকবাল খাঁনকে ও ২০১৭ সালের ৫ নভেম্বর রায়হান ইসলাম নামের ব্যবস্থাপনা শিক্ষা বিভাগের ৭ম ব্যাচের এক শিক্ষার্থীকে মারধরের অভিযোগ রয়েছে ছাত্রলীগের এ নেতার বিরুদ্ধে।

আরও পড়ুন