কুমিল্লা
রবিবার,২৯ জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ
১৫ মাঘ, ১৪২৯ | ৬ রজব, ১৪৪৪
শিরোনাম:
কুমিল্লায় ৭১১ রোগীকে বিনামূল্যে চিকিৎসা দিলেন ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন ইসলামী ব্যাংকের ফাস্ট এ্যসিসস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে নাজমুলের পদোন্নতি লাভ ‘গ্লোবাল ইয়ুথ লিডারশিপ’ অ্যাওয়ার্ড পেলেন তাহসিন বাহার কুমিল্লার সাবেক জেলা প্রশাসক নূর উর নবী চৌধুরীর ইন্তেকাল কাউন্সিলর প্রার্থী কিবরিয়ার বিরুদ্ধে অস্ত্র সরবরাহের অভিযোগ লাকসামে বঙ্গবন্ধু ফুটবল গোল্ডকাপে পৌরসভা দল বিজয়ী কুসিক নির্বাচন: এক মেয়রপ্রার্থীসহ ১৩ জনের মনোনয়ন প্রত্যাহার কুসিক নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন বিদ্রোহী প্রার্থী ইমরান স্বাস্থ্য সচেতনতার লক্ষ্যে কুমিল্লায় ঢাকা আহছানিয়া মিশনের মেলার আয়োজন কুসিকে মেয়র প্রার্থী রিফাতের নির্বাচন পরিচালনায় ৪১ সদস্যের কমিটি

‘ক্যাপ্টেন’ মিরাজের ইনিংসে রাজশাহীর প্রথম জয়

কাগজে কলমে রাজশাহী কিংসের এবারের দলটি একটু দুর্বল। তার উপর নেতৃত্ব দেয়া হয়েছে মাত্র ২১ বছর বয়সী মেহেদী হাসান মিরাজকে, যার কিনা বিপিএলের মতো বড় আসরে কখনই অধিনায়কত্ব করার অভিজ্ঞতা নেই। রাজশাহীর এই দলটি তাই প্রতিপক্ষের সঙ্গে কুলিয়ে উঠতে পারবে না, এমনটাই ধরে নিয়েছিলেন অনেকে।

তবে নেতৃত্বের অভিষেক আসরেই নিজের গুণ দেখালেন মিরাজ। প্রথম ম্যাচে হারলেও দ্বিতীয় ম্যাচেই জয় পেয়েছে তার দল রাজশাহী কিংস। এবং সেই জয়টাও এসেছে মিরাজেরই বুদ্ধিদীপ্ত নেতৃত্ব আর দুর্দান্ত এক ক্যাপ্টেনস নকে।

অধিনায়কের অপরাজিত হাফসেঞ্চুরিতে ভর করে খুলনা টাইটান্সকে ৭ উইকেটে হারিয়েছে রাজশাহী কিংস । এ নিয়ে টানা তৃতীয় ম্যাচে হারের মুখ দেখল মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দল। এখন পর্যন্ত বিপিএলে একমাত্র দল হিসেবে তারা রইল জয়শূন্য।

এমনিতে জাতীয় দলে মিরাজকে নিচের দিকে ব্যাটিংয়ে দেখেই অভ্যস্ত ক্রিকেট ভক্তরা। ঢাকা ডায়নামাইটসের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচেও সাত নাম্বারে নেমেছিলেন এই অলরাউন্ডার। করেন মাত্র ১ রান।

খুলনার বিপক্ষে এই মিরাজকেই দেখা গেল ওয়ান ডাউনে। ১১৮ রান তাড়ায় দ্বিতীয় ওভারে মোহাম্মদ হাফিজ ৬ রান করে তাইজুলের শিকার হওয়ার পরই উইকেটে আসেন তিনি। পাওয়ের প্লে’র সুবিধাটাও তাই কাজে লাগিয়েছেন দারুণভাবে।

মুমিনুল হককে নিয়ে দ্বিতীয় উইকেটে মিরাজ গড়েন ৮৯ রানের বড় এক জুটি। ৪৩ বলে ৪ বাউন্ডারিতে ৪৪ করা মুুমিনুলকে ফিরিয়ে এই জুটিটি ভাঙেন স্টারলিং। কিন্তু মিরাজ ফিফটি তুলে তবেই থেমেছেন।

দলের জয়ের জন্য তখন দরকার আর মাত্র ৯ রান। এমন সময়ে জহির খানের বলে বোল্ড হন মিরাজ। ৪৫ বলে ৬ চার আর ১ ছক্কায় তার ইনিংসটি ছিল ৫১ রানের। এটিই তার টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারের সেরা ইনিংস।

এর আগে রাজশাহীর বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে ৯ উইকেটে ১১৭ রানের বেশি এগোতে পারেনি খুলনা টাইটান্স। দলের পক্ষে জুনায়েদ সিদ্দিকী ২৩ আর ডেভিড মালান করেন ২২ রান। বাকিদের কেউ বিশের ঘরও ছুঁতে পারেননি।

আরও পড়ুন