কুমিল্লা
রবিবার,২৮ মে, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ
১৪ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩০ | ৭ জিলকদ, ১৪৪৪
শিরোনাম:
অভি’কে সিইও হিসেবে অনুমোদন দিলো আইডিআরএ কুমিল্লায় ৭১১ রোগীকে বিনামূল্যে চিকিৎসা দিলেন ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন ইসলামী ব্যাংকের ফাস্ট এ্যসিসস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে নাজমুলের পদোন্নতি লাভ ‘গ্লোবাল ইয়ুথ লিডারশিপ’ অ্যাওয়ার্ড পেলেন তাহসিন বাহার কুমিল্লার সাবেক জেলা প্রশাসক নূর উর নবী চৌধুরীর ইন্তেকাল কাউন্সিলর প্রার্থী কিবরিয়ার বিরুদ্ধে অস্ত্র সরবরাহের অভিযোগ লাকসামে বঙ্গবন্ধু ফুটবল গোল্ডকাপে পৌরসভা দল বিজয়ী কুসিক নির্বাচন: এক মেয়রপ্রার্থীসহ ১৩ জনের মনোনয়ন প্রত্যাহার কুসিক নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন বিদ্রোহী প্রার্থী ইমরান স্বাস্থ্য সচেতনতার লক্ষ্যে কুমিল্লায় ঢাকা আহছানিয়া মিশনের মেলার আয়োজন

ব্যাটিং জিনিয়াস বিরাট কোহলির নতুন ইতিহাস

ফাইল ছবি

কোথায় থামবেন কোহলি? আদৌ কি থামবেন কোহলি?- ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলির ব্যাপারে এমন প্রশ্ন ওঠা এখন খুবই স্বাভাবিক। ব্যাট হাতে মাঠে নামেনই যেনো একের পর এক রেকর্ড গড়তে, নতুন ইতিহাসে নিজের নাম তুলতে। ক্রিকেট মাঠে তার দাপুটে ব্যাটিংয়ের বিপক্ষে প্রতিপক্ষের অবস্থা হয় খুবই করুণ।

শুরুর দিকে টেস্ট ক্রিকেটে খানিক সমস্যা হলেও ক্রমেই তিন ফরম্যাটের সঙ্গে নিজেকে মানিয়ে নিয়েছেন কোহলি। যার প্রমাণ মিলেছে ২০১৮ সালে কোহলির পারফরম্যান্সেই। আর এ পারফরম্যান্সের কল্যাণেই আইসিসির বার্ষিক পুরষ্কারে ইতিহাস গড়েছেন ভারতের এ ব্যাটিং জিনিয়াস।

ইতিহাসের প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে এক বছরের শীর্ষ তিনটি ব্যক্তিগত পুরষ্কার জিতেছেন কোহলি। ২০১৮ সালের স্যার গ্যারফিল্ড সোবার্স বর্ষসেরা খেলোয়াড়, বর্ষসেরা ওয়ানডে ক্রিকেটার এবং বর্ষসেরা টেস্ট ক্রিকেটার- তিনটি পুরষ্কারই জিতেছেন বিরাট কিং কোহলি। এছাড়া ২০১৮ সালের বর্ষসেরা ওয়ানডে একাদশ ও বর্ষসেরা টেস্ট একাদশের অধিনায়কও নির্বাচিত হয়েছেন তিনি।

গত বছর ওয়ানডে ও টেস্ট দুই ফরম্যাটেই হাজারের বেশি রান করেছেন কোহলি। সাদা পোশাকের টেস্ট ক্রিকেটে ১৩ ম্যাচ খেলে ৫ সেঞ্চুরিতে ৫৫.০৮ গড়ে করেছেন ১৩২২ রান। ওয়ানডে ক্রিকেটে মাত্র ১৪ ম্যাচ খেলেই করেছেন ১২০২ রান, ছিলো ৬টি সেঞ্চুরির ইনিংস। গড়টা অতিমানবীয়- ১৩৩.৫৫! এছাড়া টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটেও ১০ ম্যাচে ৩০ গড়ে ২১১ রান করেছেন তিনি।

এর আগে গতবছর অর্থাৎ ২০১৭ সালের স্যার গ্যারফিল্ড সোবার্স বর্ষসেরা খেলোয়াড় এবং বর্ষসেরা ওয়ানডে ক্রিকেটার পুরষ্কার জিতেছেন কোহলি। এছাড়া ২০১২ সালেও নির্বাচিত হয়েছিলেন বর্ষসেরা ওয়ানডে খেলোয়াড় হিসেবে। কিন্তু এবারের আগে কখনোই বর্ষসেরা টেস্ট ক্রিকেটার হতে পারেননি তিনি। এবার একসঙ্গে তিন পুরস্কার জিতে সে অপূর্ণতাই ঘোচালেন কোহলি।

নতুন এ ইতিহাস গড়ার অনুভূতি জানিয়ে আইসিসিকে কোহলি বলেন, ‘এটা আসলে অসাধারণ অনুভূতি। সারা বছরজুড়ে কঠোর পরিশ্রম করারই পুরস্কারই এটি। আমি সত্যিই সবার কাছে কৃতজ্ঞ এবং আমার পারফরম্যান্সে দলও উপকৃত হওয়ায় খুবই খুশি। বৈশ্বিক পর্যায়ে এমন স্বীকৃতি পাওয়াটা একজন ক্রিকেটারের জন্য অনেক বড় গর্বের বিষয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘এমন ভাবে তিনটি পুরস্কার একসঙ্গে পাওয়া আসলে বলে বোঝানো সম্ভব নয়, আমার জন্য অনেক বেশি গর্বের মুহূর্ত এটি। এতে আমার ভালো খেলার তাড়না আরো বেড়ে যায় কারণ আপনি একটা মানদণ্ড তৈরি করলে সেটি ধরে রাখাও আপনার দায়িত্ব। এ দিক থেকে চিন্তা করে এসব পুরস্কার আমার জন্য বাড়তি অনুপ্রেরণা।’

আরও পড়ুন