কুমিল্লা
শুক্রবার,১৫ নভেম্বর, ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ
১ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ | ১৭ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১
Bengali Bengali English English

এমপি বাহারের সংবর্ধনাকে ঘিরে কুমিল্লায় উৎসবের আমেজ

আগামী কাল রবিবার (২৭ জানুয়ারি) কুমিল্লা স্টেডিয়াম মাঠে সংসদ সদস্য আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহারের নাগরিক সংবর্ধনাকে ঘিরে কুমিল্লাজুড়ে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। কুমিল্লা সদর আসন ১৯৭৫ সাল থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত ছিল বিএনপিসহ অন্যান্য দলের দখলে। ২০০৮ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এ আসনটি পুনরুদ্ধার করে আওয়ামীলীগ ও মহাজোট থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার। কুমিল্লাার মাটি ও মানুষের সাথে যার সম্পর্ক। স্কুল জীবন থেকেই রাজনীতি সচেতন এই মানুষটি কুমিল্লা পৌরসভার ছিলেন ২ বারের চেয়ারম্যান। ফলে কুমিল্লার সকল শ্রেণি পেশার মানুষের সাথে আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহারের রয়েছে নিবীড় সম্পর্ক।

২০০৮ সালে নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচন এবং পরবর্তীতে দশম ও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পরপর তিন বার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে এক অনন্য নজীর সৃষ্টি করেছেন তিনি। সাধারণ মানুষের ভালোবাসায় যেন তিনি একটি পরিপূর্ণ মানুষ। যার প্রতিফলন এই নাগরিক সবর্ধনা। পর পর তিনবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ায় কুমিল্লাবাসী নাগরিক কমিটির ব্যানারে সংসদ সদস্য আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহারকে এ সংবর্ধনা প্রদান করছে। সংবর্ধনাকে ঘিরে কুমিল্লা জুড়ে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। কুমিল্লার রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, বিভিন্ন পেশাজীবী প্রতিষ্ঠানের পরিচালক ও নেতৃবৃন্দ, সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ শতস্ফূর্তভাবে এ সংবর্ধনায় নিজের সবটুকু উজাড় করে দিয়েছে।

রবিবার এ সংবর্ধনাকে ঘিরে বিশাল উদ্যোগ ও বণ্যাঢ্য আয়োজন করছে নাগরিক সংবর্ধনা পর্ষদ। কুমিল্লা নগরীর সকল গুরুত্বপূর্ণ সড়ক ও স্থাপনায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে ব্যানার, ফেস্টুন দিয়ে সাজানো হয়েছে। কুমিল্লা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ড চেয়ারম্যান প্রফেসার মো. রুহুল আমিন ভূঁইয়াকে আহবায়ক ও সকল প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা এ পর্ষদের সদস্য রয়েছেন। নাগরিক পর্ষদের আহবায়ক হিসেবে দায়িত্বে আছেন কুমিল্লা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ড চেয়ারম্যান প্রফেসার মো. রুহুল আমিন ভূঁইয়া, যুগ্ম আহবায়ক হিসেবে আছেন কুমিল্লা মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও কুমিল্লা ফুটবল এসোসিয়েশনের সভাপতি আরফানুল হক রিফাত, সদস্য সচিব হিসেবে আছেন কুমিল্লা অজিতগুহ কলেজের অধ্যক্ষ হাসান ইমাম মজুমদার ফটিক। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানকে শতভাগ আনন্দঘন উৎসবে রূপ দিতে প্রতিদিন মিটিং করছে এ পর্ষদ।

সংবর্ধনাকে আনন্দঘন করতে থাকবে মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। কুমিল্লা শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত স্টেডিয়ামকে সাজানো হয়েছে বর্ণাড্য ভাবে। নিমন্ত্রন দেয়া হয়েছে জেলার সর্বোচ্চ সকল স্তরের সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের। যাদের জন্যে থাকবে সংরক্ষিত আসন। এরপরে মাঠের একটি বিশাল অংশ ও পূর্ব দিকের গ্যালারি থাকবে উন্মুক্ত। যেখান থেকে যে কেউ অনুষ্ঠান উপভোগ করতে পারবেন। অনুষ্ঠনকে কেন্দ্র করে থাকবে নিশ্চিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা। কুমিল্লা পুলিশ প্রশাসন ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরায় পুরো অনুষ্ঠান নজরদারিতে রাখবে। বিকাল ৩টায় অনুষ্ঠানের সুচনা। অনুষ্ঠানস্থলকে বর্ণাঢ্য সাজে সাজানো হচ্ছে। লাইট, বিভিন্ন রঙের পতাকা, কুমিল্লা উন্নয়নের চিত্র, ব্যনার, ফেস্টুন ও তোরণ নির্মাণ করা হচ্ছে। আমন্ত্রিত অতিথিদের জন্য বিশেষ কার্ড দিয়ে আমন্ত্রন জানানো হচ্ছে। ওই সকল আমন্ত্রিত অতিথিরাবৃন্দ বসবেন সংরক্ষিত নির্দিষ্ট আসনে।বিকাল ৩ টায় অনুষ্ঠান সূচনা হবে।

সংবর্ধিত অতিথি সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহারকে স্বস্ত্রীক মুন্সেফবাড়ী থেকে মটর শোভাযাত্রায় নিয়ে আসা হবে শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত স্টেডিয়ামের মূল ফটকের কাছে। গেইট থেকে সংবর্ধনা পর্ষদের সদস্যরা সংসদ সদস্য আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার ও মেহেরুন্নেছা বাহারকে লাল গালিচা দিয়ে অনুষ্ঠানস্থলে নিয়ে আসাা হবে। সেখান থেকে অতিথিকে নিয়ে যাওয়া হবে অভিবাদন মঞ্চে। জাতীয় সংগীত বাজানো হবে তখন। বিএনসিসির একটি চৌকস দল গার্ড অব অনার প্রদর্শন করবে সংবর্ধিত অতিথিকে।

এরপর অনুষ্ঠানের সভাপতি সংবর্ধদিত অতিথি আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার ও মেহেরুন্নেছা বাহার সহ অন্যান্য অতিথিদের নিয়ে মূল মঞ্চে যাবেন। সংবর্ধনা পর্ষদের পক্ষ থেকে সংসদস্য আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার ও মেহেরুন্নেছা বাহারকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হবে। এর পর কুমিল্লা জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার এবং কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানাবেন।

এছাড়া আর অন্য কোন প্রতিষ্ঠানের পক্ষে ফুল ও উপহার গ্রহন করবেননা তিনি। এর পর আয়োজক কমিটি থেকে বক্তব্য রাখেবেন আহবায়ক, যুগ্ম আহবায়ক ও সদস্য সচিব। মাগরিবের নামাজের বিরতির পর বক্তব্য রাখবেন সংবর্ধীত অতিথি মিসেস মেহেরুন্নেছা বাহার ও আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার। এমপি বাহারে বক্তব্যের পর পরই ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত স্টেডিয়ামের পশ্চিম গ্যালারী থেকে বর্ণাঢ্য আতশবাজি পদর্শিত হবে। সব শেষে থাকবে দেশের বিখ্যাত সংঙ্গীত শিল্পী কর্ণিয়া, মিনার, জলের গান ও চিন্তক থিয়েটারের সাংস্কৃতিক পরিবেশনা।

এমপি বাহারের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের বিষয়ে উদযাপন কমিটির আহবায়ক কুমিল্লা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ড চেয়ারম্যান প্রফেসার মো. রুহুল আমিন ভূঁইয়া জানান, এ সংবর্ধনা কুমিল্লার মানুষের আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহারের প্রতি ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ। তিনি জানান, অনুষ্ঠানকে ঘিরে সকল মানুষের মধ্যে একটা উৎসব লক্ষ করা গেছে, আহবায়ক হিসেবে তিনি সহযোগিতা করার জন্য সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

সদস্য সচিব অধ্যক্ষ হাসান ইমাম মজুমদার ফটিক জানান, নাগরিক কমিটির প্রতিটি সদস্য ও কুমিল্লা সকল মনুষ সতস্ফুর্ত ভাবে সংবর্ধনা সফল করতে সহযোগিতা করছেন।তিনি জানান, আমরা সকলকে নিয়ে আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার এর সংবর্ধনা অনুষ্ঠানটি সফল করবো। যুগ্ম আহবায়ক মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আরফানুল হক রিফাত জানান, নাগরিক কমিটির ব্যানারে আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার এর সংবর্ধনা একটি উৎসবে রুপ নিয়েছে।

এ অনুষ্ঠানকে ঘিরে দেখা গেছে মানুষ বাহার ভাইকে কতোটা ভালোবাসে। কুমিল্লা জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক নাজমুল আহসান রোমেন ফারুক জানান, আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার এর সংবর্ধনায় আমরা কুমিল্লা ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত স্টেডিয়ামকে বর্ণাঢ্য করে সাজিয়েছি, আমন্ত্রিত অতিথি ও জনসাধারন যাতে ভালোভাবে অনুষ্ঠান উপভোগ করতে পারে স্টেডিয়াম মাঠকে ঘিরে সকল ব্যাবস্থা রাখা হয়েছে।

আরও পড়ুন