কুমিল্লা
মঙ্গলবার,২ মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
১৭ ফাল্গুন, ১৪২৭ | ১৭ রজব, ১৪৪২

নাঙ্গলকোটে নারী নিয়ে সংঘর্ষ; বাড়িঘর ভাংচুর-লুটপাট : আটক ৬

নাঙ্গলকোটে নারী ঘটিত বিষয়ে সন্ত্রাসী হামলায় দোকানপাট, বসতঘর ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। শনিবার রাতে উপজেলার রায়কোট দক্ষিণ ইউনিয়নের বেল্টা ও পূর্ববামপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এঘটনায় এক ইউপি সদস্যসহ ৬ জনকে আটক করেছে পুলিশ। এঘটনায় এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

আটকরা হলেন, বেল্টা গ্রামের ইউপি সদস্য খোরশেদ আলম, তার ভাই পেয়ার আহম্মদ, রেজাউল হক ও পূর্ববামপাড়া গ্রামের মজিবুল হক, মহিবুল্লাহ, জসিম উদ্দিন হোরা।

স্থানীয় সূত্র মতে, বেল্টা ও পূর্ববামপাড়া গ্রামে শনিবার রাতে নারী ঘটিত বিষয়ে একশ থেকে দেড়শ জনের একটি সন্ত্রাসী গ্রুপ দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে অতর্কিতভাবে পূর্ব বামপাড়া গ্রামের উত্তর পাড়া ছালেহ আহাম্মদের মুদি দোকান, আতর ইসলামের চা ও মুদি দোকান, আলমগীরের চা দোকান হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও লুটপাট করে।

পরে সন্ত্রাসী গ্রুপটি পূর্ববামপাড়া গ্রামের রেজাউল হক রেজু, সেকান্দর আলী ও নবী হুজুরের টিন সেডের বেড়া ও হোসেনের চা দোকান ও এছহাক সওদারের মুদি দোকানে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে নাঙ্গলকোট থানার পুলিশ রাতেই ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ৬জনকে আটক করে।

ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ী ছালেহ আহাম্মদ জানান, শনিবার রাত ১১ টায় একশ থেকে দেড়শ জনের একটি সন্ত্রাসী গ্রুপ দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে আমার দোকানে হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও লুটপাট করে। এ সময় আমার দোকানের সাড়ে তিন লাখ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। এছাড়া আমার পার্শ্ববর্তী আতর ইসলামের চা দোকান থেকে ২ লাখ টাকার মালামাল ও আলমগীরের চা দোকান থেকে ৬০ হাজার টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায় বলে অভিযোগ করেন তিনি।

এ বিষয়ে নাঙ্গলকোট থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আশ্রাফুল ইসলাম নতুন কুমিল্লাকে জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। এ ঘটনায় জিজ্ঞাবাদের জন্য ৫জনকে আটক করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

আরও পড়ুন