কুমিল্লা
সোমবার,২৮ নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
১৩ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ | ৩ জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪
শিরোনাম:
কুমিল্লায় ৭১১ রোগীকে বিনামূল্যে চিকিৎসা দিলেন ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন ইসলামী ব্যাংকের ফাস্ট এ্যসিসস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে নাজমুলের পদোন্নতি লাভ ‘গ্লোবাল ইয়ুথ লিডারশিপ’ অ্যাওয়ার্ড পেলেন তাহসিন বাহার কুমিল্লার সাবেক জেলা প্রশাসক নূর উর নবী চৌধুরীর ইন্তেকাল কাউন্সিলর প্রার্থী কিবরিয়ার বিরুদ্ধে অস্ত্র সরবরাহের অভিযোগ লাকসামে বঙ্গবন্ধু ফুটবল গোল্ডকাপে পৌরসভা দল বিজয়ী কুসিক নির্বাচন: এক মেয়রপ্রার্থীসহ ১৩ জনের মনোনয়ন প্রত্যাহার কুসিক নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন বিদ্রোহী প্রার্থী ইমরান স্বাস্থ্য সচেতনতার লক্ষ্যে কুমিল্লায় ঢাকা আহছানিয়া মিশনের মেলার আয়োজন কুসিকে মেয়র প্রার্থী রিফাতের নির্বাচন পরিচালনায় ৪১ সদস্যের কমিটি

কুমিল্লায় সরিষার বাম্পার ফলনে কৃৃৃৃষকের মুখে হাসি

কুমিল্লার মুরাদনগরে বিস্তীর্ণ মাঠজুড়ে হলুদ রঙয়ের সমারোহ। চারিদিকে সরিষা ফুলে ভরে উঠেছে ফসলের মাঠ। ঋতুর পালাবদলের সঙ্গে বদলে গেছে প্রকৃতির রূপ বৈচিত্র। ফুলের তেমন গন্ধ না ছড়ালেও এর দৃশ্য যেন আকৃষ্ট করছে প্রকৃতিপ্রেমীদের। আবহাওয়া অনুকুলে থাকায় চলতি মৌসুমে সরিষার আবাদ দ্বীগুণে আশায় কিষাণ-কিষাণীদের মূখে ফুঠেছে হাসির ঝিলিক। শেষ প্রর্যন্ত আবহাওয়া অনুকুলে থাকলে বাম্পার ফলনের আশাও করছে চাষিরা।

মুরাদনগর উপজেলার প্রত্যন্ত এলাকায় প্রায় ৫ হাজার ১৮০ হেক্টর জমিতে আবদ করা হয়েছে সরিষার। ধান চাষ করে লোকসানের সম্মুখীন হওয়া কৃষক এখন লাভের মুখ দেখতে যাচ্ছে সরিষা চাষের মাধ্যমে। কীটণাশক মুক্তভাবে সরিষা চাষে বাম্পার ফলন হয়েছে।

উপজেলা কৃষি বিভাগ সূত্র মতে, উপজেলার ২৪ হাজার হেক্টর চাষাবাদী জমির মধ্যে গত বছর সরিষা চাষ হয়েছিল ৩ হাজার ৫শত হেক্টর জমিতে। এ বছর উপজেলা কৃষি অফিসের ৪ হাজার ৭’শ হেক্টর জমিতে চাষাবাদের লক্ষ্যমাত্রা থাকলেও চাষের পরিমান বৃদ্ধি পেয়ে ৫ হাজার ১৮০ হেক্টরে দাড়িয়েছে। হেক্টর প্রতি সরিষা উৎপাদন হবে প্রায় ৭/৮ টন। প্রাকৃতিক পরিবেশ অনুকূলে থাকায় চলতি মৌসুমে অন্যান্য বছরের তুলনায় এবার সরিষা চাষে বাম্পার ফলন হয়েছে।

কৃষকরা জানায় বিঘা প্রতি ৪/৫ হাজার টাকা খরচ করে প্রায় বিঘা প্রতি ৮ মন সরিষা পাওয়া যাবে, যার বাজার মূল্য হবে ৯ থেকে ১০ হাজার টাকা। কম খরচ ও অল্প দিনের পরিচর্যার মাধ্যমে অধিক লাভবান হওয়া যায় সরিষা চাষে। তাই ধান চাষ করে লোকসান দেয়া কৃষক ক্ষিরা চাষের পাশাপাশি জমিতে সরিষা চাষ করছেন।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আল মামুন রাসেল নতুন কুমিল্লাকে জানান, সরকার থেকে এ বছর ১ হাজার ৭’শ কৃষককে বীজ ও সার প্রনোদনা হিসেবে প্রদান এবং ৪০টি প্রর্দশনী দেয়া হয়েছে। উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তারা মাঠ পর্যায়ে কৃষকদের প্রয়োজনীয় প্রযোক্তির পরামর্শ ও প্রশিক্ষন সেবা দিয়েছেন। সরিষা কৃষকের স্বপ্ন পূরণের পাশাপাশি ভোজ্য তেলের ঘাটতি পূরণেও বিশেষ ভূমিকা রাখবে।

আরও পড়ুন