কুমিল্লা
রবিবার,১৬ মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
২ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ | ৩ শাওয়াল, ১৪৪২

শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ক্ষোভ:

কুবিতে ক্লাস-পরীক্ষা চলাকালে উচ্চশব্দে মাইক!

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাসের সময়ে অনুষদ ভবনের সামনে প্রায়ই কোন না কোন অনুষ্ঠানে উচ্চশব্দে সাউন্ড বক্সে গান বাজানোর কারনে বিভিন্ন বিভাগের পরীক্ষা ও ক্লাসে সমস্যা হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এমন ঘটনা নিয়মিত ঘটছে বলেও অভিযোগ করে বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীবৃন্দ। যা নিয়ে শিক্ষার্থীদের মধ্যে বিরাজ করছে চরম ক্ষোভ।

জানা যায়, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে নিয়মের তোয়াক্কা না করে প্রায়শই ক্লাসের সময়ে অনুষদ ভবনের অদূরেই (ব্যাডমিন্টন কোর্ট) বিভিন্ন অনুষ্ঠান করার অনুমতি দিয়ে আসছে। এমনকি খোদ প্রশাসনও আয়োজন করছে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের। এমন প্রোগ্রামগুলোয় উচ্চশব্দে বাজানো হয় সাউন্ড বক্স। যাতে বিভিন্ন বিভাগের সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষা, মিডটার্ম ও নিয়মিত ক্লাসে সমস্যা হয় বলে অভিযোগ করেন শিক্ষক শিক্ষার্থীবৃন্দ।

কলা ও মানবিক অনুষদ ভবন এবং বানিজ্য অনুষদ ভবন অনুষ্ঠানস্থলের নিকটবর্তী হওয়ায় এ সমস্যার সৃষ্টি হয় বলে জানা যায়। যেখানে বিভিন্ন বিভাগের র‌্যাগ ডে, বিভিন্ন সংগঠনের অনুষ্ঠান, উপাচার্যের এক বছর পূর্তিতে অনুষ্ঠান, উপাচার্যের বই বিতরণ ও প্রকাশনা উৎসবসহ বেশ কয়েকটি অনুষ্ঠান ক্লাসের সময়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে এমনটাই অভিযোগ শিক্ষার্থীদের।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী নতুন কুমিল্লাকে জানান, আমাদের ক্লাসের সময়ে প্রতিনিয়ত যদি এভাবে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মাইকের শব্দ আমাদের কানে আসে তাহলে আমরা কিভাবে ক্লাসে মনোযোগ দিব? আর বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন নিয়মিত এধরনের অনুষ্ঠানের অনুমতি দিয়ে যাচ্ছে এমনকি খোদ প্রশাসনই বিভিন্ন সময়ে ক্লাস টাইমে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। আবার শিক্ষকদেরও দেখা যায় ক্লাস পরীক্ষা বাদ দিয়ে সেসব অনুষ্ঠানে যোগদান করতে।

বিভিন্ন বিভাগের একাধিক শিক্ষক নতুন কুমিল্লাকে বলেন, ক্লাস টাইমে বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যাডমিন্টন কোর্টে নিয়মিত এমন অনুষ্ঠানের কারনে আমাদের ক্লাস নিতে সমস্যা হয়। বিভাগগুলোতে সেমিস্টার পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে এমন উচ্চশব্দে মাইক বাজিয়ে প্রোগ্রাম করা সত্যিই অবাঞ্ছনীয়।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন কিভাবে ক্লাসের সময়ে অনুষদ ভবনের সামনে এধরনের অনুষ্ঠানের অনুমতি দেয় এমন প্রশ্নের জবাবে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. কাজী মোহাম্মদ কামাল উদ্দিন নতুন কুমিল্লাকে বলেন,‘আমরা একাডেমিক কার্যক্রম চলাকালীন সময়ে ক্যাম্পাসের ক্লাস-পরীক্ষাসহ কোন কাজে সমস্যা হয় এমন অনুষ্ঠানের অনুমতি দেই না।

আর অনুমতি দিলেও যাতে কোন বিভাগের ক্লাস পরীক্ষার সমস্যা না হয় সে ব্যাপারে সতর্ক করে দেওয়া হয়। আমরা দ্রুতই উপাচার্যের সাথে বসে এই অনুষ্ঠানগুলো যাতে কোন সমস্যার সৃষ্টি না করে সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে প্রক্টর ড. কাজী মোহাম্মদ কামাল উদ্দিন জানান।

আরও পড়ুন