কুমিল্লা
রবিবার,১৬ মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
২ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ | ৩ শাওয়াল, ১৪৪২

কুমিল্লার দেবিদ্বারে দুই ভূয়া সাংবাদিক গ্রেফতার

সাংবাদিক ও ম্যাজিষ্ট্রেট পরিচয়দানকারী দুই যুবককে গ্রেফতার করেছে দেবিদ্বারে থানা পুলিশ।

সোমবার (১৩ মে) বিকেলে উপজেলার ভানী ইউনিয়নের খাদঘর এলাকায় সাংবাদিক ও ম্যাজিষ্ট্রেট পরিচয়ে চাঁদা দাবী করার সময় স্থানীয়রা তাদের আটক করে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেন।

আটকরা হলেন, কুমিল্লা লালমাই এলাকার শিকারীপাড়া গ্রামের আমির হোসেন’র পুত্র আব্দুল মোতালেব (২৯), সে দৈনিক বাংলার আলোড়ন পত্রিকার বিশেষ প্রতিনিধির পরিচয় দেয়। অপরজন কুমিল্লা কোতয়ালী থানার রাজগঞ্জ এলাকার আক্তারুজ্জামান’র পুত্র আব্দুল্লাহ আল মনসুর (২৮), সে দৈনিক ডাক প্রতিদিন ও দৈনিক বাংলার আলোড়ন পত্রিকার বিশেষ প্রতিনিধি হিসেবে পরিচয় দেয়।

স্থানীয়রা জানান, ওরা কখনো ম্যাজিষ্ট্রেট, কখনো সাংবাদিক পরিচয়ে বিভিন্ন বাড়ি, ইউপি অফিস, ভূমি অফিসে ঢুকে চাঁদাবাজী করার সময় তাদের আচরণ ও অসংলগ্ন কথাবার্তায় সন্দেহ হলে তাদের আটক করেন।

এর আগে গত কাল রবিবার (১২ মে) খাদঘর আবুর বাড়ির বাগানের লিচু, অলিউল্লাহর বাড়ির গাছের ১০টি ডাব, বড়বাড়ির মসজিদের নারিকেল গাছ থেকে ১০টি ডাব, ফকির বাড়ি থেকে ৮টি কাঠাল, মাদ্রাসার ডাব গাছ থেকে ১০টি ডাব নিয়ে যায়।

একই কৌশলে ভাণী ইউনিয়ন পরিষদ সচিব মনির হোসেন থেকে ৫শত টাকা এবং ভূমি অফিস’র নায়েব এমদাদুল থেকে ৫শত টাকা আদায় করে একটি মনোহরী দোকানে অবৈধ মাল আছে বলে ৫হাজার টাকা চাঁদা দাবী করলে স্থানীয়দের সন্দেহ হয়।

এসময় দলীল লিখক ও ভানী ইউনিয়ন সেচ্ছাসেবক লীগ’র সাধারন সম্পাদক সাইফুল ইসলাম’র জিজ্ঞাসাবাদে অসংলগ্ন কথাবার্তায় ভূয়া সাংবাদিক প্রমানীত হলে, গনপিটুনি দিয়ে তাদের পুলিশে সোপর্দ করা হয়।

এব্যপারে দেবীদ্বার থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ জহিরুল আনোয়ার জানান, চাঁদা দাবীর অভিযোগে ওদের স্থানীয়রা আটক করে গনপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেন। তাদের রাতে আরো জিজ্ঞাসাবাদ করে স্বাক্ষ্য প্রমাণাদীর ভিত্তিতে ভূয়া সাংবাদিক পরিচয় পেলে মঙ্গলবার সকালে ভ্রাম্যমান আদালতে হাজির করা হবে।

আরও পড়ুন