কুমিল্লা
শুক্রবার,২৩ এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
১০ বৈশাখ, ১৪২৮ | ১০ রমজান, ১৪৪২

কুমিল্লায় অবৈধ গ্যাস সংযোগে কোটিপ্রতি দালাল চক্র!

সারা দেশে যখন ল্যান্ড লাইন গ্যাস সংযোগ বন্ধ সেখানে কুমিল্লার চান্দিনায় রাতের অন্ধকারে দেওয়া হচ্ছে গ্যাস সংযোগ। চান্দিনা উপজেলার মাধাইয়া ও বাতঘাসী ইউনিয়নের অন্তত ৭টি ও দেবিদ্বার উপজেলার ভানী ইউনিয়নের ৩ গ্রামে এক যোগে চলছে গ্যাস লাইন সংযোগের কাজ।

বাখরাবাদ গ্যাস কোম্পানীর ঠিকাদর পরিচয়ে শাহজাহান নামে এক দালাল গ্রাহক প্রতি ৫০/৬০ হাজার টাকায় অবৈধ গ্যাস সংযোগ দিয়ে হাতিয়ে নিচ্ছে কোটি কোটি টাকা। দীর্ঘ দিন এমন অবস্থা চলতে থাকলেও কার্যত ভূমিকা নেই সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের।

শাহজাহান চান্দিনা উপজেলার মাধাইয়া ইউনিয়নের মুরাদপুর গ্রামের বাসিন্দা। সে নিজেকে বাখরাবাদ গ্যাস কোম্পানীর একজন ঠিকদার পরিচয় দিলেও প্রকৃত পক্ষে বাখরাবাদ গ্যাস কোম্পানীর ঠিকাদারদের নামের তালিকায় তার কোন নাম নেই।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক সংলগ্ন ১৬ ইঞ্চি মেইন পাইপ ছিদ্র করে জনৈক শাহজাহান দীর্ঘদিন যাবৎ চান্দিনা উপজেলার মাধাইয়া ইউনিয়নের নাওতলা, মাধাইয়া, কুয়ারপাড়, নূরীতলা, দোতলা, বাখরাবাদ, কুটুম্বপুর এবং দেবিদ্বার উপজেলার ভানী ইউনিয়নের ফুলতলী, আলিরটেক গ্রামে অন্তত ২০ কিলোমিটার অবৈধ গ্যাস লাইন নির্মাণ করেন।

এই সব অবৈধ গ্যাস লাইনের আওতায় অন্তত ৭-৮ শত গ্রাহক রয়েছে। ওই গ্রাহকদের মধ্যে কারও বই আছে, আবার কারও নেই। যাদের বই আছে, তাদের বিল ব্যাংক দেওয়া হয় না। শাহজাহান প্রতিমাসের শুরুতে ওই বইগুলো বিলসহ বাখরাবাদ গ্যাস অফিসে জমা দেওয়ার কথা বলে নিয়ে যায়।

নাম প্রকাশ না করা শর্তে স্থানীয় একাধিক বাসিন্দা নতুন কুমিল্লা.কমকে জানান, রাত ৯টার পর থেকে শুরু হয় রাস্তা খোড়াখুড়ি এবং পাইপ স্থাপনের কাজ। চলে সকাল অবধি।

সম্প্রতি মাধাইয়া ইউনিয়নের মুরাদপুর এবং বাতাঘাসী ইউনিয়নের নাজিরপুর ও হাসিমপুর এলাকায় রাতের অন্ধকারে গ্যাস সংযোগ কাজ চালাচ্ছে শাহজাহান, সংবাদ পেয়ে সরেজমিনে শুক্রবার রাত ১০টায় হাসিমপুর এলাকায় গিয়ে দেখা যায় রাতের অন্ধকারে ৮-১০জন শ্রমিক সড়কের পাশে মাটি কেটে ড্রেন করছে।

আর ৩-৪জন শ্রমিক কেউ পাইপ জোড়া দিচ্ছে আবার কেউবা ট্যাপ প্যাঁচাচ্ছে। ওই ঘটনাস্থলে সংবাদকর্মীদের ক্যামেরার ফ্লাস পরতেই কাজ ফেলে পালিয়ে যায় শ্রমিকরা।

কিছুক্ষণ পর শাহজাহান ঘটনাস্থলে এসে সাংবাদিকদের ম্যানেজ করার চেষ্টা করে বলেন, ‘বাখরাবাদ গ্যাস কোম্পানীর লোকজনের সাথে আলোচনা ছাড়া কাজ করছি না। আপনাদের সাথেও সমঝোতা করে লাইনের কাজ করবো।

এসময় খবর পেয়ে চান্দিনা থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ৩২০ ফুট পাইপ ও একটি ওয়েলডিং ম্যাশিন জব্দ করে থানায় নিয়ে আসে।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত শাহজাহানকে একাধিক বার ফোন করেও তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

মাধাইয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. অহিদ উল্লাহ নতুন কুমিল্লা.কমকে জানান, দীর্ঘদিন যাবৎ সে এভাবেই গ্যাস লাইন সংযোগ কাজ চালিয়ে আসছে। আমি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার আগ থেকেই দেখে আসছি তার (শাহজাহান) এ ব্যবসা।

চান্দিনা উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) এসএম জাকারিয়া নতুন কুমিল্লা.কমকে জানান, গ্যাস লাইন সংযোগের বিষয়টি আমার জানা ছিল না। যেহেতু এখন জেনেছি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

বাখরাবাদ গ্যাস কোম্পানী লিমিটেডের ম্যানেজার কিশোর কুমার দত্ত নতুন কুমিল্লা.কমকে জানান, বিষয়টি আমরা জেনেছি। এ বিষয়ে শীঘ্রই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আরও পড়ুন