কুমিল্লা
বুধবার,১৬ জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
২ আষাঢ়, ১৪২৮ | ৫ জিলকদ, ১৪৪২

পাকিস্তান-আফগান ম্যাচের সাতকাহন

পাকিস্তানের বিপক্ষে জয়ের কাছাকাছি পৌঁছে গিয়ে ছিল আফগানিস্তান। কিন্তু তীরে এসে তরী ডুবিয়ে দেয় অধিনায়ক গুলবাদিন নাইবের দল। আর এতেই নতুন প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে। মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে ফিক্সিংয়ের অভিযোগ। একইসঙ্গে শনিবারের এই ম্যাচ নিয়ে নানা রঙ ছড়িয়েছে!

সেমি-ফাইনালের আশা জিইয়ে রাখতে পাকিস্তানের সামনে জয়ের কোনো বিকল্প ছিল না। ২২৭ রানের পুঁজি নিয়েও লড়ে যাচ্ছিল আফগানিস্তান। ১৫৬ রানেই পাকিস্তানের ৬ উইকেট ফেলে দিয়েছিল তারা। কিন্তু হারের দ্বার প্রান্ত থেকে ঘুরে দাঁড়িয়ে ৩ উইকেটের জয় পায় সরফরাজ আহমেদের দল। তাই নাটকীয়ভাবে আফগানদের হারে চার দিক থেকে ভেসে আসছে নানা প্রশ্ন।

এখানেই শেষ নয় পাকিস্তান-আফগানিস্তান ম্যাচের নাটকীয়তা। লিডসের হেডিংলি স্টেডিয়ামে দু’দলের সমর্থকদের মধ্যে বেধে যায় সংঘর্ষ। হাতাহাতি থেকে বোতল ছোড়াছুড়ি এবং ময়লা ফেলার পাত্রও ছুড়তে দেখা যায় তাদের। গ্যালারির পরিবেশ শান্ত রাখতে নিরাপত্তা কর্মীরা রীতিমতো হিমশিম খেয়েছেন।

মাঠের বাইরেও পাকিস্তান-আফগানিস্তান সমর্থকরা গোলযোগ বাধিয়ে দিয়েছিল। কিছু দর্শক তো টিকিট ছাড়াই জোর করে মাঠে ঢুকে পড়ে। আর ম্যাচ শেষে ভক্তরা পৌঁছে যায় পিচ পর্যন্ত।

ম্যাচ চলাকালে ‘বেলুচিস্তানের জন্য ন্যায় বিচার’ লেখা ব্যানার নিয়ে স্টেডিয়ামের ওপর দিয়ে উড়ে যায় একটি বিমান। অন্য আর একটি বিমানের ব্যানারে লেখা ছিল ‘বেলুচিস্তানে গুম বন্ধ করতে সহায়তা করুণ’। ভারতের পাঞ্জাব রাজ্যে খালিস্তান আন্দোলনের পক্ষে ব্যানারও দেখা দেখা গেছে পাকিস্তানের গত ম্যাচের মতো এ ম্যাচেও। দর্শকরা এ আন্দোলনের পক্ষে স্লোগান দিলেন।

আরও পড়ুন