কুমিল্লা
শুক্রবার,১৫ নভেম্বর, ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ
১ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ | ১৭ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১
Bengali Bengali English English

নাঙ্গলকোটে ছাত্রী অপহরণকালে তিন যুবককে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে মাদ্রাসার পরীক্ষার শেষে বাড়ী যাওয়ার পথে এক ছাত্রীকে অপহরণকালে তিন যুবককে আটক করে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে স্থানীয় জনতা।

এ সময় অপহরণকারীদের কবল থেকে মাদ্রসা ছাত্রীকে উদ্ধার ও অপহরণকাজে ব্যবহৃত একটি এ্যাম্বুলেন্স (ঢাকা মেট্রো চ-১৩-২২৭৭ ) জব্দ করা হয়।

মঙ্গলবার (১৫ অক্টোবর) উপজেলার রায়কোট উত্তর ইউপির মাহিনী বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। অপহরণকৃত ওই ছাত্রী পুর্ব খাঁঘর গ্রামের (ছদ্ম নাম আব্দুল কাদেরের মেয়ে) ও মন্তলী রহমানিয়া ফাযিল মাদ্রাসার অষ্টম শ্রেণীতে পড়–য়া।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মন্তলী রহমানীয়া ফাজিল মাদ্রাসার ওই ছাত্রীকে দীর্ঘদিন যাবৎ প্রাইভেট পড়াতেন অপহরণকারী গৃহশিক্ষক মক্রবপুর ইউপির মাইরাগাঁও গ্রামের সাঈদ হোসেনের ছেলে সাইফুল ইসলাম (২৮)। প্রাইভেট পড়ানোর সময় ওই ছাত্রীকে বিভিন্ন ভাবে প্রেম ও বিয়ের প্রস্তাব দেন।

পরে বিষয়টি জানাজানি হলে ওই ছাত্রীর পরিবার সাইফুলকে প্রাইভেট না পড়ানোর জন্য নিষেধ করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে মঙ্গলবার দুপুরে সাইফুল পৌর সদরের নতুন হরিপুর গ্রামের শাহজাহানের ছেলে সাইফুল (এ্যাম্বুলেন্স ড্রাইভার) (২৬) ও দৌলখাঁড় গ্রামের হানিফের ছেলে মেহেদি হাছান (২২) কে সঙ্গে নিয়ে শ্রীরামপুর শিশু মিতালী কিন্ডার গার্টেনের সামনে অবস্থান করেন।

পরীক্ষা শেষে বাড়ী ফেরার পথে ওই ছাত্রীকে এ্যাম্বুলেন্স যোগে অপহরণ করে নিয়ে যাওয়ার পথে মাহিনী বাজার এলাকায় পৌছলে স্থানীয় লোকজন এ্যাম্বুলেন্সটি আটক করে ও অপহরণকারীদের গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে।

এ বিষয়ে নাঙ্গলকোট থানার ওসি মো: নজরুল ইসলাম নতুন কুমিল্লা.কমকে বলেন, এলাকাবাসী তিনজনকে আটক করে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে।

আরও পড়ুন