কুমিল্লা
রবিবার,১৬ মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
২ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ | ৩ শাওয়াল, ১৪৪২

লাকসামে কমিউনিটি ক্লিনিকের আসবাবপত্র আত্মসাতের অভিযোগ

লাকসাম উপজেলার বাকই দক্ষিণ ইউনিয়নের মজলিশপুর কমিউনিটি ক্লিনিকের সহকারি স্বাস্থ্য পরিদর্শক তাহমিনা মাহবুব শিউলির বিরুদ্ধে ক্লিনিকের সোলার প্যানেল ও আসবাবপত্র আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে।

ক্লিনিকের সভাপতি ও স্থানীয় ইউপি মেম্বার রফিকুল ইসলাম রফিজ এ বিষয়ে গত সপ্তাহে লাকসাম উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ আবদুল আলীর নিকট মৌখিকভাবে অভিযোগ করেন।

জানা গেছে, ওই ক্লিনিকে সেবার মান বৃদ্ধির জন্য ২০১৭ সালে ২০টি চেয়ার প্রদান করে ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ নামে একটি এনজি। কিন্তু ক্লিনিকের সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক তাহমিনা মাহবুব শিউলি চেয়ারগুলোর অধিকাংশ আত্মসাত করে অন্যত্র সরিয়ে ফেলেন।

বেশ কিছুদিন ধরে চেয়ারগুলো না দেখতে পেয়ে ক্লিনিকের সভাপতি ও স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বারসহ এলাকাবাসী ক্ষোভ প্রকাশ করেন। অপরদিকে, ওই কমিউনিটি ক্লিনিকে উপজেলা প্রশাসনের দেয়া একটি সোলার প্যানেল ও ব্যাটারিসহ লোপাট হয়।

অভিযোগ অস্বীকার করে অভিযুক্ত সহকারি স্বাস্থ্য পরিদর্শক তাহমিনা মাহবুব শিউলি নতুন কুমিল্লা.কমকে বলেন, ওয়ার্ল্ড ভিশন কর্মকর্তার সাথে আলাপ করে চেয়ারগুলোতে নাম লেখার জন্য নিয়ে যাই। আমি আসবাবপত্র আত্মসাৎ করিনি। আর সোলার প্যানেল চুরি হয়ে গেছে।

এদিকে, চেয়ারে নাম লেখানোর বিষয়ে কিছুই জানেন না বলে জানিয়েছেন, ওয়ার্ল্ডভিশন বাংলাদেশ লাকসাম শাখার ম্যানেজার শ্যামল ফ্রান্সিস রোজারিও। তিনি বলেন, আমাদের দেয়া আসবাবপত্রে আমরাই নাম লিখে সংশ্লিষ্টদের প্রদান করে থাকি। নতুন করে নাম লেখার দরকার পড়ে না।

মজলিশপুরে সদ্য যোগদানকারী সিএইচসিপি সাবিহা আক্তার মুক্তা নতুন কুমিল্লা.কমকে বলেন, আমাকে এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে এ কমিউনিটি ক্লিনিকের দায়িত্ব বুঝিয়ে দেয়া হয়নি। তবে সোলার প্যানেল ও ব্যাটারি চুরি হওয়ার কথা শুনেছি।

এ বিষয়ে লাকসাম উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ আবদুল আলী নতুন কুমিল্লা.কমকে বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। এএইচআই তাহমিনাকে দায়িত্ব বুঝিয়ে দেয়ার জন্য বলেছি। আর আসবাবপত্রের বিষয়ে খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আরও পড়ুন