কুমিল্লা
মঙ্গলবার,২৭ অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
১১ কার্তিক, ১৪২৭ | ৯ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪২

নাঙ্গলকোটে পল্লী চিকিৎসকসহ ৪ জনের করোনা সনাক্ত, আক্রান্ত বেড়ে ১১

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে এক পল্লী চিকিৎসকসহ গত ২৪ ঘন্টায় চার জন প্রাণঘাতি করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। উপজেলার ঢালুয়া ইউপির চিওড়া, মন্নারা, সাতবাড়িয়া ইউপির সাতবাড়িয়া ও পৌর সদরের হরিপুর গ্রামের এ আক্রান্তের ঘটনা ঘটে।

আক্রান্তরা হলেন, পোর সদরের হরিপুর গ্রামের মাসুদ রানা (৩০), ঢালুয়া ইউপির চিওড়া গ্রামের এনায়েত উল্যাহ (৩৬), মন্নারা গ্রামের পল্লী চিকিৎসক যতন মজুমদার (৫৫) ও সাতবাড়িয়া ইউপির সাতবাড়িয়া গ্রামের রুবেল (২৮)।

এ ঘটনায় সোমবার (১৮-মে) বিকেলে উপজেলা প্রশাসন নয়টি বাড়ি ও একটি হাসপাতাল লক ডাউন করা হয়। এনিয়ে পুরো উপজেলায় ১১ জন করোনায় আক্রান্ত হয়।


কুমিল্লা ১৭ উপজেলার করোনাভাইরাস আপডেট দেখতে এখানে ক্লিক করুন


অপরদিকে এ পর্যন্ত ২ শত ১০ জনের নমুনা সংগ্রহ করেছন উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। যার রিপোর্ট আসে ১ শত ৭০ জনের। যা অন্য উপজেলার তুলনায় অনেক কম।

নাঙ্গলকোট উপজেলা স্বাস্থ্য বিষয় কর্মকর্তা ডাক্তার দেব দাস দেব জানান, গত শুক্রবার (১৫-মে) স্থানীয় লোকজন মারপথ জানতে পেরে উপজেলা র‌্যাপিড রেসপন্স টিম তার নমুনা সংগ্রহ করে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পিসিআর ল্যাবে প্রেরণ করে। সোমবার জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে প্রেরিত তার রিপোর্টে পজিটিভ আসে।

আইসোলেশনে রেখে চিকিৎসাসেবা দেওয়া হচ্ছে এবং উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে হরিপুর গ্রামের পাঁচটিবাড়ী, পৌরসভার এপলো হাসপাতাল, মন্নারা গ্রামের একটি বাড়ী, সাতবাড়ীয়া গ্রামের তিনটি বাড়ীলকডাউন করা হয়েছে।

এ বিষয়ে নাঙ্গলকোট থানার অফিসার ইনচার্জ বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, খবর পেয়ে উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে নয়টি বাড়ি ও একটি প্রাভেট হাসপাতাল লকডাউন করা হয়েছে। পাশাপাশি তাৎক্ষণিক পুলিশ পাঠিয়ে তাদেরকে নজরদারিতে রাখা হয়েছে। যাতে তারা পালাতে না পারে।

আরও পড়ুন