কুমিল্লা
শনিবার,৮ মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
২৫ বৈশাখ, ১৪২৮ | ২৫ রমজান, ১৪৪২

নাঙ্গলকোটের এক যুবকের লাশ কক্সবাজার থেকে উদ্ধার

নিহত ছালা উদ্দিন/ ফাইল ছবি

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটের ছালা উদ্দিন (৩০) নামের এক যুবকের লাশ কক্সবাজার কলাতলী এলাকার ছোট কালবার্টের নিচ থেকে উদ্ধার করেছে সদর থানার পুলিশ। নিহত যুবক উপজেলা মক্রবপুর ইউপির ভাতোড়া গ্রামের মৃত. সিদ্দিকুর রহমানের ছেলে।

এ ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে মঙ্গলবার দিবাগত রাতে ওই ইউপির মক্রবপুর গ্রামের মৃত. ইদ্রিস মিয়া ছেলে ওমর ফারুক নামের এক ট্রেণ হকারকে আটক করেছে নাঙ্গলকোট থানা পুলিশ।

আজ বুধবার (১০ জুন) আটককৃত ওমর ফারুককে কক্সবাজার সদর থানার এস আই আনছারুল হক এর মাধ্যমে কক্সবাজার সদর থানায় হস্তানতর করা হয়।

নিহতের বড় ভাই জসিম উদ্দিন বলেন, গত বৃহস্পতিবার সকালে চট্টগ্রামের উদ্দেশ্য বাড়ি থেকে বাহির হয় ছালা উদ্দিন। তারপর থেকে আর কোন খবর নেই। গত রোববার রাতে নাঙ্গলকোট থানার মাধ্যমে জানতে পারি ছালা উদ্দিনের লাশ পাওয়া গেছে কক্সবাজার এলাকা। খবর পাওয়ার পরে সোমবার সকলে রওনা দিই কক্সবাজার। সেখানে গিয়ে আমার ভাইকে হত্যা করে তার মুখে আগুন বা এসিড দিয়ে পুড়ে দেয়।

লাশ বাড়িতে আনার পর আমার মা পায়ের আঙ্গুল দেখে তাকে চিনতে পারে। গত সোমবার তার ৩ টা ৩০ মিনিটের সময় পারিবারিক কবরস্থানে নিহতের লাশ দাফন সম্পন্ন করা হয়। আমরা এ হত্যাকান্ডের সাথে জড়িতদের আইনের আওতায় এনে সঠিক বিচারের দাবি জানাই।

এ বিষয়ে নাঙ্গলকোট থানার এস আই ওবায়দুল হক জানান, দীর্ঘদিন ধরে ছালা উদ্দিন ও ওমর ফারুক ট্রেণে হকারি করে আসছে। তার পাশাপাশি তারা দু’জনে মাদক ব্যবসায়ের সঙ্গে জড়িয়ে পড়ে। ওই ব্যবসায়ের ভাগ বির্তন্ড তাদের মধ্যে বিরোধ হয়। তবে প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে ওই ঘটনার কারণে ছালা উদ্দিনকে কক্সবাজার নিয়ে হত্যা করা হয়৷ এ ঘটনার কক্সবাজার সদর থানায় গত সোমবার (৮-জুন) একটি হত্যা মামলা হয়। যাহার নং ১৯। এতে জড়িত সন্দেহ ওমর ফারুক আটক করা হয়।

কক্সবাজার সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাহজাহান কবির জানান, গত রোববার বিকেলে কলাতলী এলাকার কালর্বাটের নিচ থেকে বিকৃত অবস্থায় ছালা উদ্দিন নামের ওই যুবকের মরদেহে উদ্ধার করা হয়। আঙ্গুলে ছাপ নিয়ে তার পরিচয় বাহির করি। লাশ ময়না তদন্ত করে পবিরারের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

এ ঘটনায় গত সোমবার নিহতের ভাই জসিম উদ্দিন বাদি হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। নাঙ্গলকোট থানা পুলিশের মাধ্যমে এ ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহ ওমর ফারুক নামের এক যুবককে আটক করা হয়।

আরও পড়ুন