কুমিল্লা
বুধবার,২৫ নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
১০ অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ | ৯ রবিউস-সানি, ১৪৪২

নাঙ্গলকোটে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে ছাদ বাগান

বৈষিক করোনাভাইরাসের আপদকালীন সময়ে ঘরে থাকতে বাধ্য হওয়ায় কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে অনেকেই নিজের ছাদে বাগানের পরিচর্যা করে সময় কাটাচ্ছেন। ফুল, ফল গাছ আর সবজিতে ভরে গেছে অনেকের ছাদ বাগান। আর এই ছাদ কৃষিতে উৎসাহের পাশাপাশি সব ধরনের সহযোগিতা করছে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর।

শুক্রবার নাঙ্গলকোট পৌরসদরের হরিপুরে আমেরিকান প্রবাসী নূরুল আমিন জসীমের বাড়ির ছাদে গিয়ে এমনি চিত্র পাওয়া যায়। ৪ বছর পূর্বে ওই বাড়িটি ভাড়া নেন নাঙ্গলকোট পাটোয়ারী জেনারেল হাসপাতালের মালিক সাইফুল ইসলাম পাটোয়ারী। তিনি শখের বসিবুত হয়ে শুরু করেন ছাদ বাগান।

https://www.facebook.com/adsfarmbd/

তিনি ২০১৭ সালের দিকে ৩ হাজার স্কয়ার ফিটের একতলা ডুপ্লেক্স বাড়ীর পুরো ছাদটিতে একটি বাগান গড়েতুলেন। শুরুতেই ২-৩ টি প্লাস্টিকের ড্রামে গাছ লাগান। ওই বাগানে দেখা দিয়েছে সবুজের সমাহার।

বাগানে জাম্বুরা, থাই পেয়ারা, কাজি পেয়ারা, স্ট্রবেরি পেয়ারা, মালতা, কামরাঙ্গা, জলপাই, বাউল কুল, আপেল কুল, এলাছ, ড্রাগন, পেঁপে, আমড়া, চালতা, ঢেউয়া, আম, সোফেদা, নেসপাতি, লটকন, বেল, এবোকাটো, বেলুম্ব, করমোজা, কাটবাদাম, কটবেল, ১২ মাসী আমসহ ৬০ প্রজাতির নানাহ রকম ফলের গাছ ও ভেষজ উদ্ভিদ দেখা যায়। বিশাল বাগান গড়ে তোলেন ভাড়া বাড়ীর ছাদে বর্তমানে বাগানের সবজি দিয়ে নিজের খাওয়া চলে। তার এ বাগানের পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছেন পৌরসভা উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা জোনায়েদ আহমেদ।

দেখা যায়, পরিকল্পিতভাবে উদ্যোগ নিয়ে ছাদ বাগান করলে বিভিন্ন প্রজাতির ফুল, ফল, সবজি, ঔষধি গাছের বাগান ফলানো সম্ভব। এসব বাগান করে সফলতাও পাচ্ছেন অনেক। বাণিজ্যিকভাবে চাষাবাদের চিন্তাধারাও করছেন তারা। যা জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে এখানকার ছাদ বাগান। অনেকই কাজে অবোদ্ধ হয়ে তাদের বাড়ি ছাদে ১০-১৫ করে ফল, ফুল ভেষজ উদ্ভিদ সহ বিভিন্ন ধরনের শাক সবজি গড়ে তুলেন।

ছাদের বাগান মালিক সাইফুল ইসলাম পাটোয়ারী বলেন, ফুল, ফল ও ভেষজ উদ্ভিদসহ ৬০ প্রজাতিরগাছ রয়েছে তার বাগানে। পাশাপাশি বিভিন্ন ধরে শাক সবজি গড়ে তুলেন। এখন আর বাজার থেকে কিছুই ক্রয় করতে হয় না। হাসপাতালের কাজের পাশাপাশি বাগানের পরিচর্যার কাজ করি। এতে প্রায় লখার্ধিক টাকা খরচ হয় তার।

পৌরসভা উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা জোনায়েদ আহমেদ জানান, করোনাকালীন সময়ে বর্তমান সরকার ঘোষণা অনুযায়ী বাংলাদেশের প্রতিটি জায়গায় খাদ্যশস্য লাগানোর নিদর্শন দেন। তারি অংশ হিসেবে নাঙ্গলকোট পৌর সদরের প্রায় ৫০টি বাড়ির ছাদের বাগান করা হয়েছে। এতে ফুল মুল থেকে শাক সবজিও রয়েছে। পোকামাকড় ও কিভাবে বাগান করবে তার জন্য বাড়ি বাড়ি গিয়ে পরামর্শ দিচ্ছি। এ চরম মুহূর্তে কৃষি খ্যাত বিশেষ অবদান রাখছেন।

আরও পড়ুন