কুমিল্লা
বৃহস্পতিবার,২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
৮ আশ্বিন, ১৪২৮ | ১৫ সফর, ১৪৪৩

খসরুর আসনে মনোনয়ন প্রত্যাহার করায় জাপা প্রার্থী বহিস্কার

দলীয় নেতা-কর্মীদের না জানিয়ে গোপনে কুমিল্লা-৫ (বুড়িচং-ব্রাহ্মণপাড়া) আসনের উপ-নির্বাচনে প্রার্থীতা প্রত্যাহারের আবেদন করায় ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা জাতীয় পার্টির (জেপি) আহ্বায়ক ও দলীয়প্রার্থী মো. জসিম উদ্দিনকে দলের প্রাথমিক সদস্যসহ সকল পদ পদবী থেকে বহিস্কার করা হয়েছে। একই সঙ্গে দলটির কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা ও ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়েছে।

সোমবার (২১ জুন) জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা ও ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা জাতীয় পার্টির কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করেন বলে জানা যায়।

বহিস্কার আদেশে উল্লেখ হয়, মোঃ জসিম উদ্দিন কুমিল্লা-৫ আসনের উপ-নির্বাচনে দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে প্রার্থীতা প্রত্যাহার করায় তার বিরুদ্ধে এ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। জাতীয় পার্টির সংসদীয় বোর্ড প্রার্থী মনোনয়নের সাক্ষাৎকার অনুষ্ঠানে যেকোনো পরিস্থিতিতে নির্বাচনের শেষ দিন পর্যন্ত মাঠে থাকার প্রতিশ্রুতিতে জসিম উদ্দিনকে মনোনয়ন প্রদান করা হয়। কিন্তু তিনি মনোনয়ন বোর্ডের সিদ্ধান্তকে অমান্য করেছেন।

এ বিষয়ে কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা জাতীয় পার্টির যুগ্ম আহবায়ক ওবায়দুল কবীর মোহন নতুন কুমিল্লাকে জানান,কুমিল্লা-৫ উপ-নির্বাচনে প্রার্থী জসিম উদ্দিন টাকা বিনিময়ে বিক্রি হয়ে আত্মগোপনে আছেন। প্রার্থীতা প্রত্যাহারের আবেদন করেছেন কাউকে না জানিয়ে। এজন্য তাকে বহিস্কার করা হয়েছে।

জেলা কমিটি বিলুপ্তের বিষয়ে জানতে চাইলে দক্ষিণ জেলা জাতীয়পার্টির সদস্য সচিব হুমায়ূন কবির মুনশী নতুন কুমিল্লাকে বলেন, প্রার্থীর অপকর্মের দায় তো আমরা নিতে পারিনা। জসিমের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও পাইনি। সে ব্যক্তিগত সিদ্ধান্তে প্রার্থীতা প্রত্যাহার করেছে। এ বিষয়ে আমরা কিছুই জানিনা।

বহিস্কারের বিষয়ে জানতে জাতীয় পার্টির প্রার্থী জসিম উদ্দিনকে একাধিকবার মোবাইলে ফোন করেও তার কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

উল্লেখ্য, আগামী ২৪ জুন মনোনয়ন প্রত্যাহারের দিন ধার্য থাকলেও চারদিন আগেই নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত জানালেন জাপা প্রার্থী মো. জসিম উদ্দিন। রবিবার (২০ জুন) বিকেল সোয়া ৪টার দিকে কুমিল্লা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে এসে রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক মো. কামরুল হাসানের কাছে প্রার্থীতা প্রত্যাহারের আবেদনটি জমা দেন। ফলে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় এমপি হচ্ছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী এডভোকেট আবুল হাসেম খাঁন। এ আসন থেকে মাত্র দু’জনই মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

আরও পড়ুন