কুমিল্লা
বৃহস্পতিবার,২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
৮ আশ্বিন, ১৪২৮ | ১৫ সফর, ১৪৪৩

লালমাইতে যৌতুক না পেয়ে নির্যাতনের পর স্ত্রীকে মাথা ন্যাড়া

কুমিল্লায় যৌতুকের টাকা না পেয়ে স্ত্রীকে নির্যাতন করে মাথা ন্যাড়া করে দিয়েছেন স্বামী। এ ঘটনায় নির্যাতিতার স্বামী হাসানকে (৪০) আটক গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শনিবার (৩ জুলাই) দুপুরে আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। লালমাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আইয়ুব শনিবার রাতে নতুন কুমিল্লাকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ সূত্র জানায়, ১৮ বছর আগে হাসানের সাথে একই উপজেলার তুলাতলী গ্রামের ফরিদা আক্তারের (৩৫) বিয়ে হয়। সম্প্রতি তিনি ব্যবসার জন্য শ্বশুর বাড়ি থেকে ৫ লাখ টাকা এনে দিতে স্ত্রীকে চাপ দেন। টাকা না দেওয়ায় গত ১৯ জুন বিকেলে স্বামী হাসান ও দেবর হোসাইন গৃহবধূ ফরিদাকে টয়লেট পরিষ্কারে ব্যবহৃত ব্রাশ দিয়ে শারীরিক নির্যাতন করে। এক পর্যায়ে তার মাথার চুল ন্যাড়া করে দেন তারা। পরর্তীতে ২৪ জুন বিকালে ২য় দফায় তাকে আবারও নির্যাতন করে তারা।

গত ৩০ জুন দুপুরে মৌখিক অভিযোগের প্রেক্ষিতে ভুলইন দক্ষিণ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান একরামুল হক নিজ কার্যালয়ে উভয় পক্ষের উপস্থিতিতে বিষয়টি সমাধান করতে সালিশ বৈঠকের আয়োজন করা হয়। এতে হাসান সংসার করতে না চাওয়ায় ২ লাখ টাকা নিয়ে স্ত্রীকে তালাক দেয়ার সিদ্ধান্ত দেন। কিন্তু নির্যাতন ও মাথা ন্যাড়া করার বিচার না পাওয়ায় নির্যাতিতা নারী সেই সিদ্ধান্ত না মেনে শুক্রবার (২ জুলাই) লালমাই থানায় মামলা করেন। এ ঘটনায় শনিবার ভোরে এলাকায় অভিযান চালিয়ে পুলিশ হাসানকে গ্রেফতার করে।

গৃহবধূ ফরিদা আক্তার নতুন কুমিল্লাকে বলেন, যৌতুকের জন্য আমার ওপর নির্যাতন চালিয়ে মাথার চুল কেটে দেয়া হয়। চেয়ারম্যান অফিসে শারীরিক নির্যাতন ও মাথা ন্যাড়ার বিচার না পাওয়ায় থানায় মামলা দায়ের করতে বাধ্য হয়েছি। তিনি এ ঘটনার সঠিক বিচার দাবী করেন।

আরও পড়ুন